বিষয় ভিত্তিক হাদিস

বিষয়-ভিত্তিক-হাদিস

বিষয় ভিত্তিক হাদিস

বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম; বিষয় ভিত্তিক হাদিস পড়ার এক অনন্য মাধ্যম এই তাওহীদের ডাক সাইটটি; এখানে অতি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কিত হাদিস সমূহ খুব সহজেই পড়তে পারা যায়; পাঠকগণ, যেকোন বিষয়ের হাদিস সমূহ পেতে চাইলে যা এই সাইটে যুক্ত করা হয়নি, কমেন্ট বক্সে জানাবেন; ইনশাআল্লাহ যত দ্রুত সম্ভব সেই বিষয়ের হাদিস সমূহ পেশ করব। নিচে বিষয়সমূহ উল্লেখ করা হলো; আপনার কাঙ্খিত বিষয়ের হাদিস সমূহ পেতে নিচের বিষয়ের নামের উপর ক্লিক করুন।

  1. ইমাম মাহদী সম্পর্কে হাদিস

  2. ইহসান সম্পর্কে হাদিস

Tags: বিষয় ভিত্তিক হাদিস, বিষয় ভিত্তিক হাদীস, বিষয়ভিত্তিক হাদিস, 

حَدَّثَنَا الْحُمَيْدِيُّ عَبْدُ اللَّهِ بْنُ الزُّبَيْرِ، قَالَ حَدَّثَنَا سُفْيَانُ، قَالَ حَدَّثَنَا يَحْيَى بْنُ سَعِيدٍ الأَنْصَارِيُّ، قَالَ أَخْبَرَنِي مُحَمَّدُ بْنُ إِبْرَاهِيمَ التَّيْمِيُّ، أَنَّهُ سَمِعَ عَلْقَمَةَ بْنَ وَقَّاصٍ اللَّيْثِيَّ، يَقُولُ سَمِعْتُ عُمَرَ بْنَ الْخَطَّابِ ـ رضى الله عنه ـ عَلَى الْمِنْبَرِ قَالَ سَمِعْتُ رَسُولَ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم يَقُولُ ‏ “‏ إِنَّمَا الأَعْمَالُ بِالنِّيَّاتِ، وَإِنَّمَا لِكُلِّ امْرِئٍ مَا نَوَى، فَمَنْ كَانَتْ هِجْرَتُهُ إِلَى دُنْيَا يُصِيبُهَا أَوْ إِلَى امْرَأَةٍ يَنْكِحُهَا فَهِجْرَتُهُ إِلَى مَا هَاجَرَ إِلَيْهِ

আলক্বামাহ ইব্‌নু ওয়াক্কাস আল-লায়সী (রহঃ) থেকে বর্ণিতঃ

আমি ‘উমর ইব্‌নুল খাত্তাব (রাঃ)-কে মিম্বারের উপর দাঁড়িয়ে বলতে শুনেছিঃ আমি আল্লাহর রসূল (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম)-কে বলতে শুনেছিঃ কাজ (এর প্রাপ্য হবে) নিয়ত অনুযায়ী। আর মানুষ তার নিয়ত অনুযায়ী প্রতিফল পাবে। তাই যার হিজরত হবে ইহকাল লাভের অথবা কোন মহিলাকে বিবাহ করার উদ্দেশ্যে- তবে তার হিজরত সে উদ্দেশ্যেই হবে, যে জন্যে, সে হিজরত করেছে।

حَدَّثَنَا عَبْدُ اللَّهِ بْنُ يُوسُفَ، قَالَ أَخْبَرَنَا مَالِكٌ، عَنْ هِشَامِ بْنِ عُرْوَةَ، عَنْ أَبِيهِ، عَنْ عَائِشَةَ أُمِّ الْمُؤْمِنِينَ ـ رضى الله عنها ـ أَنَّ الْحَارِثَ بْنَ هِشَامٍ ـ رضى الله عنه ـ سَأَلَ رَسُولَ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم فَقَالَ يَا رَسُولَ اللَّهِ كَيْفَ يَأْتِيكَ الْوَحْىُ فَقَالَ رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم ‏ “‏ أَحْيَانًا يَأْتِينِي مِثْلَ صَلْصَلَةِ الْجَرَسِ ـ وَهُوَ أَشَدُّهُ عَلَىَّ ـ فَيُفْصَمُ عَنِّي وَقَدْ وَعَيْتُ عَنْهُ مَا قَالَ، وَأَحْيَانًا يَتَمَثَّلُ لِيَ الْمَلَكُ رَجُلاً فَيُكَلِّمُنِي فَأَعِي مَا يَقُولُ ‏”‏‏.‏ قَالَتْ عَائِشَةُ رضى الله عنها وَلَقَدْ رَأَيْتُهُ يَنْزِلُ عَلَيْهِ الْوَحْىُ فِي الْيَوْمِ الشَّدِيدِ الْبَرْدِ، فَيَفْصِمُ عَنْهُ وَإِنَّ جَبِينَهُ لَيَتَفَصَّدُ عَرَقًا‏.

উম্মুল মু’মিনীন ‘আয়িশা (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ

হারিস ইব্‌নু হিশাম (রাঃ) আল্লাহর রসূল (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম)- কে জিজ্ঞেস করলেন, ‘হে আল্লাহর রসূল! আপনার নিকট ওয়াহী কিরূপে আসে?’ আল্লাহর রসূল (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বললেনঃ [কোন কোন সময় তা ঘন্টা বাজার মত আমার নিকট আসে। আর এটি-ই আমার উপর সবচেয়ে বেদনাদায়ক হয় এবং তা শেষ হতেই মালাক (ফেরেশতা) যা বলেন তা আমি মুখস্ত করে নেই, আবার কখনো মালাক মানুষের রূপ ধারণ করে আমার সাথে কথা বলেন। তিনি যা বলেন আমি তা মুখস্ত করে নেই।] ‘আয়িশা (রাঃ) বলেন, আমি তীব্র শীতের সময় ওয়াহী নাযিলরত অবস্থায় তাঁকে দেখেছি। ওয়াহী শেষ হলেই তাঁর ললাট হতে ঘাম ঝরে পড়তো।

youtube

2 thoughts on “বিষয় ভিত্তিক হাদিস

  1. আলহামদুলিল্লাহ। খুব ভালো একটি সাইট। দাড়ি রাখার এবং যুবক বয়সে চুল পেকে গেলে চুলে রং করার উপায় কী?

    1. আলহামদুলিল্লাহ
      আপনাকে স্বাগতম
      দাড়ি রাখা ওয়াজিব অতএব আপনাকে দাড়ি রাখতেই হবে যেকোন মুল্যে আর যুবক বয়সে চুল পেকে গেলে যয়তুন তেল ব্যবহার করতে পারেন তাতে কিছুটা উপকার আসতে পারে। আর হ্যা চুলে কলপ অর্থাৎ কালো রং করতে পারবেন না কারন সেটা ইসলামে নিষিদ্ধ। আর সেটাতে আপনার চুল আরো বেশি পেকে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আপনি মিনদি পাতা ব্যবহার করতে পারেন; সেটা সুন্নাত।

মন্তব্য করুন

Top
Don`t copy text!