দারেমী ব্যবসা বাণিজ্য অধ্যায় ২য় ভাগ হাদিস নং ২৬২১ – ২৬৬৬

দারেমী ব্যবসা বাণিজ্য অধ্যায় ২য় ভাগ হাদিস নং ২৬২১ – ২৬৬৬

২৬২১

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৪৫. (ফলমুল) অগ্রিম ক্রয়-বিক্রয় সম্পর্কে

২৬২১. ইবনু ’আব্বাস রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যখন মদীনায় আসেন তখন মদীনাবাসী ফলে দু’-তিন বছরের মেয়াদে অগ্রিম ক্রয়-বিক্রয় করত। তখন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, “ফলের মাপ ও ওজন নির্দিষ্ট করে নিয়ে তোমরা অগ্রিম ক্রয়-বিক্রয় করতে পারো।”[1]

সুফিয়ান সময় হিসেবে নির্দিষ্ট সময়ের কথা উল্লেখ করতেন, অত:পর আব্দুল্লাহ ইবনু কাছীর একে সন্দেহপূর্ণ করেছেন।

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ বুখারীর শর্তানুযায়ী সহীহ। হাদীসটি বুখারী ও মুসলিম কর্তৃক সম্মিলিত ভাবে বর্ণিত।

 

তাখরীজ: বুখারী, সালাম ২২৪০, ২২৪১; মুসলিম, মাসাকাত ১৬০৪। ((আবূ দাউদ, ইজারাত ৩৪৬৩-অনুবাদক))

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ২৪০৭ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৪৯২৫ ও মুসনাদুল হুমাইদী নং ৫২০ তে।

باب فِي السَّلَفِ

أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ يُوسُفَ حَدَّثَنَا سُفْيَانُ عَنْ ابْنِ أَبِي نَجِيحٍ عَنْ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ كَثِيرٍ عَنْ أَبِي الْمِنْهَالِ عَنْ ابْنِ عَبَّاسٍ قَالَ قَدِمَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ الْمَدِينَةَ وَهُمْ يُسْلِفُونَ فِي الثِّمَارِ فِي سَنَتَيْنِ وَثَلَاثٍ فَقَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ سَلِّفُوا فِي الثِّمَارِ فِي كَيْلٍ مَعْلُومٍ وَوَزْنٍ مَعْلُومٍ وَقَدْ كَانَ سُفْيَانُ يَذْكُرُهُ زَمَانًا إِلَى أَجَلٍ مَعْلُومٍ ثُمَّ شَكَّكَهُ عَبَّادُ بْنُ كَثِيرٍ

أخبرنا محمد بن يوسف حدثنا سفيان عن ابن أبي نجيح عن عبد الله بن كثير عن أبي المنهال عن ابن عباس قال قدم رسول الله صلى الله عليه وسلم المدينة وهم يسلفون في الثمار في سنتين وثلاث فقال رسول الله صلى الله عليه وسلم سلفوا في الثمار في كيل معلوم ووزن معلوم وقد كان سفيان يذكره زمانا إلى أجل معلوم ثم شككه عباد بن كثير

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবদুল্লাহ ইবনু আব্বাস (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬২২

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৪৬. উত্তমভাবে ঋণ আদায় প্রসঙ্গে

২৬২২. জাবির রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু বলেনঃ নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাদেরকে দিরহাম ওজন করে দিলেন এবং তা (দাঁড়ি পাল্লা) ঝুঁকিয়ে কিছু বেশি দিলেন।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ। আর এটি লম্বা হাদীসের অংশবিশেষ, যেটি বুখারী ও মুসলিম কর্তৃক সম্মিলিত ভাবে বর্ণিত।

 

তাখরীজ: বুখারী, বুয়ূ ২০৯৭, সালাত ৪৪২;; মুসলিম, মুসাফিরীন ৭১৫; মাসাকাত ৭১৫ (১১৫, ১১৬); ইমারাহ ৭১৫ (১৮৪, ১৮৫)।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ১৭৯৩, ১৮৫০, ১৮৯৮, ১৯৭৪, ১৯৯০ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৪৯১১, ৬৫১৭, ৬৫১৮, ৬৫১৯, ৭১৪১ ও মুসনাদুল হুমাইদী নং ১৩২২ তে।

باب فِي حُسْنِ الْقَضَاءِ

حَدَّثَنَا سَعِيدُ بْنُ الرَّبِيعِ حَدَّثَنَا شُعْبَةُ عَنْ مُحَارِبٍ قَالَ سَمِعْتُ جَابِرًا أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ وَزَنَ لَهُمْ دَرَاهِمَ فَأَرْجَحَهَا

حدثنا سعيد بن الربيع حدثنا شعبة عن محارب قال سمعت جابرا أن رسول الله صلى الله عليه وسلم وزن لهم دراهم فأرجحها

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ জাবির ইবনু আবদুল্লাহ আনসারী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬২৩

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৪৭. ওজনের সময় (কিছু অধিক দেওয়ার উদ্দেশ্যে পাল্লা) ঝুঁকিয়ে দেওয়া

২৬২৩. সুওয়াইদ ইবনু কাইস রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি এবং মাখরামা আবদী বাহরাইন থেকে মক্কায় কিছু কাপড় আমদানী করি। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম পায়ে হেঁটে আমাদের কাছে এলেন এবং একটি পাজামা ক্রয়ের দর স্থির করলেন, অথবা আমাদের নিকট থেকে একটি পায়জামা ক্রয় করলেন এবং সেখানে একজন ওজনকারী ছিল। সে পারিশ্রমিকের বিনিময়ে ওজন করে দিত। তিনি এ ওজনকারীকে বললেন, “ওযন করো এবং (পাল্লা ঝুঁকিয়ে দাও বা) একটু বেশি দাও।” এরপর যখন তিনি হেঁটে চলে গেলেন, তারা বললেন, ইনি হলেন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ শক্তিশালী।

 

তাখরীজ: আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫১৪৭ ও মাওয়ারিদুয যাম’আন নং ১৪৪৪ তে। ((সুনানে আরবা’আ, আহমাদ, হাকিম, ইবনু হিব্বান।–ফাওয়ায আহমেদের দারেমী হা/২৫৮৫ এর টীকা।–অনুবাদক))

باب الرُّجْحَانِ فِي الْوَزْنِ

أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ يُوسُفَ عَنْ سُفْيَانَ عَنْ سِمَاكِ بْنِ حَرْبٍ عَنْ سُوَيْدِ بْنِ قَيْسٍ قَالَ جَلَبْتُ أَنَا وَمَخْرَمَةُ الْعَبْدِيُّ بَزًّا مِنْ الْبَحْرَيْنِ إِلَى مَكَّةَ فَأَتَانَا رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَمْشِي فَسَاوَمَنَا بِسَرَاوِيلَ أَوْ اشْتَرَى مِنَّا سَرَاوِيلَ وَثَمَّ وَزَّانٌ يَزِنُ بِالْأَجْرِ فَقَالَ لِلْوَزَّانِ زِنْ وَأَرْجِحْ فَلَمَّا ذَهَبَ يَمْشِي قَالُوا هَذَا رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ

أخبرنا محمد بن يوسف عن سفيان عن سماك بن حرب عن سويد بن قيس قال جلبت أنا ومخرمة العبدي بزا من البحرين إلى مكة فأتانا رسول الله صلى الله عليه وسلم يمشي فساومنا بسراويل أو اشترى منا سراويل وثم وزان يزن بالأجر فقال للوزان زن وأرجح فلما ذهب يمشي قالوا هذا رسول الله صلى الله عليه وسلم

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ সুওয়ায়দ ইবন কায়স (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬২৪

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৪৮. সম্পদশালী ব্যক্তির (ঋণ পরিশোধে) বিলম্ব করা/গড়িমসি করা যুলুম

২৬২৪. আবূ হুরাইরাহ্ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “ধনী ব্যক্তির ঋণ পরিশোধে গড়িমসি করা জুলুম। যখন তোমাদের কাউকে (তার ঋণ আদায়ের জন্যে) কোন ধনী ব্যক্তির হাওয়ালা করা হয়, তখন সে যেন তা মেনে নেয়।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ শক্তিশালী।

 

তাখরীজ: মালিক, বুয়ূ ৮৪ সহীহ সনদে; বুখারী, হাওয়ালাহ ২২৮৭; মুসলিম, মাসাকাত ১৫৬৪। ((তিরমিযী, বুয়ূ ১৩০৮; নাসায়ী, বুয়ূ ৭/৩১৬ নং ৪৬৮৮, ৪৬৯১, আবূ দাউদ, বুয়ূ ৩৩৪৫, ইবনু মাজাহ, সাদাকাত ২৪০৩; আহমাদ ৭২৯১, ২৭৭৭৮, ৭৪৮৮, ২৭৩৯২, ৮৬৭৯, ২৭২৩৯, ৯৬৭৬, মুয়াত্তা মালেক ১৩৭৯।- ফাওয়ায আহমেদের দারেমী হা/২৫৮৫ এর টীকা।–অনুবাদক))

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ৬২৮৩, ৬২৯৮, ৬৩৪৪ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫০৫৩, ৫০৯০ ও মুসনাদুল হুমাইদী নং ১০৬২ তে।

باب فِي مَطْلُ الْغَنِيِّ ظُلْمٌ

حَدَّثَنَا خَالِدُ بْنُ مَخْلَدٍ حَدَّثَنَا مَالِكٌ عَنْ أَبِي الزِّنَادِ عَنْ الْأَعْرَجِ عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مَطْلُ الْغَنِيِّ ظُلْمٌ وَإِذَا أُتْبِعَ أَحَدُكُمْ عَلَى مَلِيءٍ فَلْيَتْبَعْ

حدثنا خالد بن مخلد حدثنا مالك عن أبي الزناد عن الأعرج عن أبي هريرة قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم مطل الغني ظلم وإذا أتبع أحدكم على مليء فليتبع

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ হুরায়রা (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬২৫

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৪৯. অভাবী ব্যক্তিকে (ঋণ আদায়ে) অবকাশ প্রদান প্রসঙ্গে

২৬২৫. কা’ব রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি মসজিদের ভিতরে ইবনু আবূ হাদরাদ-এর নিকট তাঁর পাওনা ঋণের তাগাদা করলেন। দু’জনের মধ্যে এ নিয়ে বেশ উচ্চস্বরে কথাবার্তা হলো। এমনকি আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাঁর ঘর হতেই তাদের কথার আওয়ায শুনলেন এবং তিনি তাদের নিকট বেরিয়ে গেলেন। আর ডাক দিয়ে বললেনঃ “হে কা’ব! তিনি উত্তর দিলেন, আমি হাযির আছি, ইয়া রাসূলাল্লাহ! আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেনঃ “তোমার পাওনা ঋণ হতে এতটুকু কমিয়ে দাও।” এ বলে তিনি হাতে ইঙ্গিত করে বোঝালেন, অর্থাৎ অর্ধেক পরিমাণ। তখন কা’ব রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু বললেনঃ আমি তাই করলাম। তিনি (ইবনু আবূ হাদরাদকে) বললেনঃ “উঠে গিয়ে বাঁকীটা পরিশোধ করে দাও।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: আহমাদ ৬/৩৯০; বুখারী, সালাত ৪৫৭, ৪৭১; খুসুমাত ২৪১৮, সুলহ ২৭১০; মুসলিম, মাসাকাত ১৫৫৮; নাসাঈ, আদাবুল কাযী ৮/২৪০; ইবনু মাজাহ, সাদাকাহ ২৪২৯; তাবারাণী, কাবীর ১৯/৬৭ নং ১২৭; আবূ দাউদ, আকযিয়া ৫৩৯৫; বাইহাকী, সুলহ ৬/৬৩-৬৪; বাগাবী, শারহুস সুন্নাহ নং ২১৫১।

باب فِي إِنْظَارِ الْمُعْسِرِ

حَدَّثَنَا عُثْمَانُ بْنُ عُمَرَ أَخْبَرَنَا يُونُسُ عَنْ الزُّهْرِيِّ عَنْ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ كَعْبٍ عَنْ أَبِيهِ أَنَّهُ تَقَاضَى ابْنَ أَبِي حَدْرَدٍ دَيْنًا كَانَ لَهُ عَلَيْهِ فِي الْمَسْجِدِ فَارْتَفَعَتْ أَصْوَاتُهُمَا حَتَّى سَمِعَهَا النَّبِيُّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ وَهُوَ فِي بَيْتِهِ فَخَرَجَ إِلَيْهِمَا فَنَادَى يَا كَعْبُ قَالَ لَبَّيْكَ يَا رَسُولَ اللَّهِ فَقَالَ ضَعْ مِنْ دَيْنِكَ فَأَوْمَأَ إِلَيْهِ أَيْ الشَّطْرَ قَالَ قَدْ فَعَلْتُ قَالَ قُمْ فَاقْضِهِ

حدثنا عثمان بن عمر أخبرنا يونس عن الزهري عن عبد الله بن كعب عن أبيه أنه تقاضى ابن أبي حدرد دينا كان له عليه في المسجد فارتفعت أصواتهما حتى سمعها النبي صلى الله عليه وسلم وهو في بيته فخرج إليهما فنادى يا كعب قال لبيك يا رسول الله فقال ضع من دينك فأومأ إليه أي الشطر قال قد فعلت قال قم فاقضه

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ কা‘ব ইবনু মালিক (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬২৬

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৫০. যে ব্যক্তি অভাবীকে (ঋণ পরিশোধে) অবকাশ প্রদাণ করে, তার (মর্যাদা) সম্পর্কে

২৬২৬. আবীল ইয়াসার রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বলতে শুনেছি: “যে লোক কোন অভাবগ্রস্ত মানুষকে (ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে) অবকাশ দেয় অথবা মাফ করে দেয়, আল্লাহ তাআলা তাকে তাঁর স্বীয় ছায়ার নীচে আশ্রয় প্রদান করবেন সেই দিনে, যেদিন তাঁর ছায়া ছাড়া আর কোনো ছায়া থাকবে না। তিনি বলেন, এরপর তিনি ঋণপত্রটিতে থুথু নিক্ষেপ করে বললেন, যাও, ওটা তোমার।’ তথা তার ঋণগ্রস্ততার জন্য। আর তিনি উল্লেখ করলেন যে, তিনি ছিলেন অভাবী বা দরিদ্র লোক।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: মুসলিম, যুহদ ৩০০৬।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫০৪৪ তে।

 

সংযোজনী: ইবনু আবী শাইবা ৬/১১ নং ২২১১, ২২১২, ৭/২৫২ নং ৩০৬৩; আব্দ ইবনু হুমাইদ নং ৩৭৮; দাওলাবী, আল ‍কুন্নী ১/৬২; বাগাবী, শারহুস সুন্নাহ নং ২১৪২।

 

আর এর অনেকগুলি শাহিদ রয়েছে, যা আপনি পাবেন আমাদের তাহ্ক্বীক্বকৃত মাজমাউয যাওয়াইদ নং ৬৭৫৩ থেকে ৬৭৬৬ পর্যন্ত।

باب فِيمَنْ أَنْظَرَ مُعْسِرًا

حَدَّثَنَا أَحْمَدُ بْنُ عَبْدِ اللَّهِ حَدَّثَنَا زَائِدَةُ عَنْ عَبْدِ الْمَلِكِ بْنِ عُمَيْرٍ عَنْ رِبْعِيٍّ عَنْ أَبِي الْيَسَرِ قَالَ سَمِعْتُ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَقُولُ مَنْ أَنْظَرَ مُعْسِرًا أَوْ وَضَعَ عَنْهُ أَظَلَّهُ اللَّهُ فِي ظِلِّهِ يَوْمَ لَا ظِلَّ إِلَّا ظِلُّهُ قَالَ فَبَزَقَ فِي صَحِيفَتِهِ فَقَالَ اذْهَبْ فَهِيَ لَكَ لِغَرِيمِهِ وَذَكَرَ أَنَّهُ كَانَ مُعْسِرًا

حدثنا أحمد بن عبد الله حدثنا زائدة عن عبد الملك بن عمير عن ربعي عن أبي اليسر قال سمعت رسول الله صلى الله عليه وسلم يقول من أنظر معسرا أو وضع عنه أظله الله في ظله يوم لا ظل إلا ظله قال فبزق في صحيفته فقال اذهب فهي لك لغريمه وذكر أنه كان معسرا

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবুল ইয়াসার (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬২৭

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৫০. যে ব্যক্তি অভাবীকে (ঋণ পরিশোধে) অবকাশ প্রদাণ করে, তার (মর্যাদা) সম্পর্কে

২৬২৭. আবী কাতাদাহ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ “যে লোক কোনো ঋণগ্রস্থ মানুষকে ঋণ পরিশোধে অবকাশ দেয় অথবা তার ঋণ মওকুফ করে দেয়, কিয়ামতের দিন সেই লোক আরশের ছায়ার নিচে স্থান লাভ করবে।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: আহমাদ ১/৩০০, ৩০৮, ৫/৩০০; ইবনু আবী শাইবা ৭/১২, ২৫০ নং ২২১৬, ৩০৫৯।

باب فِيمَنْ أَنْظَرَ مُعْسِرًا

حَدَّثَنَا عَفَّانُ بْنُ مُسْلِمٍ حَدَّثَنَا حَمَّادُ بْنُ سَلَمَةَ حَدَّثَنَا أَبُو جَعْفَرٍ الْخَطْمِيُّ عَنْ مُحَمَّدِ بْنِ كَعْبٍ الْقُرَظِيِّ عَنْ أَبِي قَتَادَةَ قَالَ سَمِعْتُ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَقُولُ مَنْ نَفَّسَ عَنْ غَرِيمِهِ أَوْ مَحَا عَنْهُ كَانَ فِي ظِلِّ الْعَرْشِ يَوْمَ الْقِيَامَةِ

حدثنا عفان بن مسلم حدثنا حماد بن سلمة حدثنا أبو جعفر الخطمي عن محمد بن كعب القرظي عن أبي قتادة قال سمعت رسول الله صلى الله عليه وسلم يقول من نفس عن غريمه أو محا عنه كان في ظل العرش يوم القيامة

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ কাতাদাহ্ আল-আনসারী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬২৮

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৫১. নি:স্ব-দরিদ্র ব্যক্তির নিকট যখন সম্পদ পাওয়া যাবে

২৬২৮. আবূ হুরাইরাহ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “যখন কেউ তার মাল এমন লোকের কাছে পায়, যে নিঃসম্বল হয়ে গেছে, তবে অন্যের চেয়ে সে-ই এর বেশী হকদার।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ। হাদীসটি বুখারী ও মুসলিম কর্তৃক সম্মিলিত ভাবে বর্ণিত।

 

তাখরীজ: বুখারী, ইসতিক্বরায ২৪০২; মুসলিম, মাসাকাত ১৫৫৯।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ৬৪৭০ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫০৩৬, ৫০৩৭, ৫০৩৮ ও মুসনাদুল হুমাইদী নং ১০৬৫, ১০৬৬ তে।

باب فِى الْمُفْلِسِ إِذَا وُجِدَ الْمَتَاعُ عِنْدَهُ

أَخْبَرَنَا يَزِيدُ بْنُ هَارُونَ حَدَّثَنَا يَحْيَى أَنَّ أَبَا بَكْرِ بْنَ مُحَمَّدٍ أَخْبَرَهُ أَنَّهُ سَمِعَ عُمَرَ بْنَ عَبْدِ الْعَزِيزِ يُحَدِّثُ أَنَّهُ سَمِعَ أَبَا بَكْرِ بْنَ عَبْدِ الرَّحْمَنِ بْنِ الْحَارِثِ بْنِ هِشَامٍ أَنَّهُ سَمِعَ أَبَا هُرَيْرَةَ يَقُولُ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مَنْ أَدْرَكَ مَالَهُ بِعَيْنِهِ عِنْدَ إِنْسَانٍ قَدْ أَفْلَسَ أَوْ عِنْدَ رَجُلٍ قَدْ أَفْلَسَ فَهُوَ أَحَقُّ بِهِ مِنْ غَيْرِهِ

أخبرنا يزيد بن هارون حدثنا يحيى أن أبا بكر بن محمد أخبره أنه سمع عمر بن عبد العزيز يحدث أنه سمع أبا بكر بن عبد الرحمن بن الحارث بن هشام أنه سمع أبا هريرة يقول قال رسول الله صلى الله عليه وسلم من أدرك ماله بعينه عند إنسان قد أفلس أو عند رجل قد أفلس فهو أحق به من غيره

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ হুরায়রা (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬২৯

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৫২. ঋণের ব্যাপারে কঠোর হুঁশিয়ারী

২৬২৯. আবূ হুরাইরা রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিতঃ তিনি বলেনঃ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ “মুমিনের রূহ তার (ঋণের কারণে) ঝুলন্ত অবস্থায় থাকে, যতক্ষণ তার ‍উপর কোনো ঋণ থাকে।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ উমার ইবনু আবী সালামাহ’র কারণে হাসান, তবে হাদীসটি সহীহ।

 

তাখরীজ: আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ৫৮৯৮ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৩০৬১ ও মাওয়ারিদুয যাম’আন নং ১১৫৮ তে। ((তিরমিযী, জানাইয ১০৭৮, ১০৭৯; ইবনে মাজাহ্, সাদাকাত ২৪১৩; আহমাদ ২/৪৪০-৪৭৫-৫০৮; বাইহাকী; ইবনু হিব্বান; হাকিম ২/২৬-২৭।- ফাওয়ায আহমেদের দারেমী হা/২৫৯১ এর টীকা হতে। –অনুবাদক))

باب مَا جَاءَ فِي التَّشْدِيدِ فِي الدَّيْنِ

أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ يُوسُفَ عَنْ سُفْيَانَ عَنْ سَعْدِ بْنِ إِبْرَاهِيمَ عَنْ عُمَرَ بْنِ أَبِي سَلَمَةَ عَنْ أَبِيهِ عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ نَفْسُ الْمُؤْمِنِ مُعَلَّقَةٌ مَا كَانَ عَلَيْهِ دَيْنٌ

أخبرنا محمد بن يوسف عن سفيان عن سعد بن إبراهيم عن عمر بن أبي سلمة عن أبيه عن أبي هريرة قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم نفس المؤمن معلقة ما كان عليه دين

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ হুরায়রা (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৩০

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৫২. ঋণের ব্যাপারে কঠোর হুঁশিয়ারী

২৬৩০. রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর মুক্তদাস সাওবান রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ “তিনটি বিষয় থেকে মুক্ত অবস্থায় যার দেহ থেকে তার প্রাণ বের হবে, সে জান্নাতে প্রবেশ করবে: অহংকার, আত্মসাৎ ও ঋণ থেকে।” [1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: নাসাঈ, আল কুবরা ৮৭৬৪; আহমাদ ৫/২৭৬, ২৭৭, ২৮১, ২৮২; হাকিম ২/২৬; বাইহাকী, বুয়ূ ৫/৩৫৫; তিরমিযী, সিয়ার ১৫৭২; ইবনু মাজাহ, সাদাকাত ২৪১২; আরও দেখুন, ফাতহুল বারী ১০/৪৯১ ও বাগাবী, শারহুস সুন্নাহ ১১/১১৮।

باب مَا جَاءَ فِي التَّشْدِيدِ فِي الدَّيْنِ

أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ عَبْدِ اللَّهِ الرَّقَاشِيُّ حَدَّثَنَا يَزِيدُ بْنُ زُرَيْعٍ حَدَّثَنَا سَعِيدٌ عَنْ قَتَادَةَ عَنْ سَالِمِ بْنِ أَبِي الْجَعْدِ عَنْ مَعْدَانَ بْنِ أَبِي طَلْحَةَ عَنْ ثَوْبَانَ مَوْلَى رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ مَنْ فَارَقَ الرُّوحُ الْجَسَدَ وَهُوَ بَرِيءٌ مِنْ ثَلَاثٍ دَخَلَ الْجَنَّةَ مِنْ الْكِبْرِ وَالْغُلُولِ وَالدَّيْنِ

أخبرنا محمد بن عبد الله الرقاشي حدثنا يزيد بن زريع حدثنا سعيد عن قتادة عن سالم بن أبي الجعد عن معدان بن أبي طلحة عن ثوبان مولى رسول الله صلى الله عليه وسلم أن رسول الله صلى الله عليه وسلم قال من فارق الروح الجسد وهو بريء من ثلاث دخل الجنة من الكبر والغلول والدين

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ সাওবান (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৩১

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৫৩. যে ব্যক্তি ঋণ রেখে মৃত্যু বরণ করে তার উপর (জানাযা) সালাত আদায় প্রসঙ্গে

২৬৩১. আবূ কাতাদা রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। জানাযার সালাত আদায়ের উদ্দেশ্যে এক ব্যক্তির লাশ নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর নিকট নিয়ে আসা হলো। তিনি বলেনঃ “তোমরা তোমাদের সঙ্গীর জানাযার সালাত আদায় করো। কেননা সে ঋণগ্রস্ত।” আবূ কাতাদা রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু বলেন, ইয়া রাসূলুল্লাহ! তার ঋণের দায়িত্ব আমার উপর রইল। তিনি বললেনঃ “পরিশোধ করার জন্য তো?” তিনি বলেন, পরিশোধ করার জন্য। এরপর তিনি তার উপর জানাযার সালাত আদায করেন।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৩০৫৮, ৩০৫৯, ৩০৬০ ও মাওয়ারিদুয যাম’আন নং ১১৫৯, ১১৬০, ১১৬১ তে। ((আহমাদ ৫/৩০১-৩০২; তিরমিযী, জানাইয ১০৬৯ নাসাঈ, জানাইয; ইবনু মাজাহ, সাদাকাত ২৪০৭…।–ফাতহুল মান্নান হা/২৭৫৬ এর টীকা হতে।–অনুবাদক))

باب فِي الصَّلَاةِ عَلَى مَنْ مَاتَ وَعَلَيْهِ دَيْنٌ

أَخْبَرَنَا سَعِيدُ بْنُ عَامِرٍ وَأَبُو الْوَلِيدِ عَنْ شُعْبَةَ عَنْ عُثْمَانَ بْنِ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ مَوْهَبٍ عَنْ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ أَبِي قَتَادَةَ عَنْ أَبِيهِ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أُتِيَ بِرَجُلٍ لِيُصَلِّيَ عَلَيْهِ فَقَالَ صَلُّوا عَلَى صَاحِبِكُمْ فَإِنَّ عَلَيْهِ دَيْنًا قَالَ أَبُو قَتَادَةَ هُوَ عَلَيَّ يَا رَسُولَ اللَّهِ قَالَ بِالْوَفَاءِ قَالَ بِالْوَفَاءِ قَالَ فَصَلَّى عَلَيْهِ

أخبرنا سعيد بن عامر وأبو الوليد عن شعبة عن عثمان بن عبد الله بن موهب عن عبد الله بن أبي قتادة عن أبيه أن رسول الله صلى الله عليه وسلم أتي برجل ليصلي عليه فقال صلوا على صاحبكم فإن عليه دينا قال أبو قتادة هو علي يا رسول الله قال بالوفاء قال بالوفاء قال فصلى عليه

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ কাতাদাহ্ আল-আনসারী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৩২

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৫৪. ঋণগ্রস্ত মৃত ব্যক্তির উপর সালাত আদায়ের অনুমতি প্রসঙ্গে

২৬৩২. আবূ হুরাইরাহ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “সেই মহান সত্তার কসম, যার হাতে আমার প্রাণ! দুনিয়াতে আমি প্রত্যেক মু’মিনেরই সকল মানুষের চেয়ে সর্বাধিক ঘনিষ্ঠ। তাই যখন কোন মু’মিন ঋণ কিংবা অসহায় পরিবার-পরিজন রেখে (মারা) যায়, তবে তার জন্য আমার নিকট বলতে হবে (তাহলে আমি তার পক্ষে তা আদায় করে দেবো।) কেননা, আমিই তার অভিভাবক। আর যদি কোনো ব্যক্তি মাল-সম্পদ রেখে যায়, তাহলে তার যে আত্মীয়-স্বজন থাকে তারা তার ওয়ারিস হবে।”[1]

আব্দুল্লাহ বলেন, ضَيَاعاً অর্থ পরিবার পরিজন বা পোষ্য (কিংবা ভরণপোষনের দায়িত্ব); আর فَلأُدْعَ لَهُ অর্থ: ’আমার নিকট চাইলে আমি তার পক্ষ হতে তা আদায় করবো।’

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: বুখারী, কিফালাহ ২২৯৮; মুসলিম, ফারাইয ১৬১৯।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ৫৯৪৮ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৩০৬৩, ৪৮৫৪, ৫০৫৪ তে।

باب فِي الرُّخْصَةِ فِي الصَّلَاةِ عَلَيْهِ

أَخْبَرَنَا عُبَيْدُ اللَّهِ بْنُ مُوسَى عَنْ سُفْيَانَ عَنْ أَبِي الزِّنَادِ عَنْ الْأَعْرَجِ عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ وَالَّذِي نَفْسِي بِيَدِهِ مَا عَلَى الْأَرْضِ مُؤْمِنٌ إِلَّا أَنَا أَوْلَى النَّاسِ بِهِ فَمَنْ تَرَكَ دَيْنًا أَوْ ضَيَاعًا فَلْأُدْعَ لَهُ فَأَنَا مَوْلَاهُ وَمَنْ تَرَكَ مَالًا فَلِعَصَبَتِهِ مَنْ كَانَ قَالَ عَبْد اللَّهِ ضَيَاعًا يَعْنِي عِيَالًا وَقَالَ فَلْأُدْعَ لَهُ يَعْنِي ادْعُونِي لَهُ أَقْضِ عَنْهُ

أخبرنا عبيد الله بن موسى عن سفيان عن أبي الزناد عن الأعرج عن أبي هريرة قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم والذي نفسي بيده ما على الأرض مؤمن إلا أنا أولى الناس به فمن ترك دينا أو ضياعا فلأدع له فأنا مولاه ومن ترك مالا فلعصبته من كان قال عبد الله ضياعا يعني عيالا وقال فلأدع له يعني ادعوني له أقض عنه

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ হুরায়রা (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৩৩

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৫৫. ঋণ গ্রহীতা সাহায্যপ্রাপ্ত

২৬৩৩. আবদুল্লাহ ইবনে জাফর রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ “ঋণগ্রস্ত ব্যক্তির ঋণ পরিশোধ না করা পর্যন্ত আল্লাহ তার সাথে থাকেন, যদি না সে আল্লাহর অপছন্দনীয় উদ্দেশ্যে ঋণ গ্রহণ করে থাকে।” রাবী বলেন, আবদুল্লাহ ইবনে জাফর রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু তার কোষাধ্যক্ষকে বলতেন, যাও, আমার জন্য ঋণ গ্রহণ করো। কেননা আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর নিকট যে হাদীস শুনেছি তারপর থেকে আল্লাহ আমার সঙ্গে থাকা ছাড়া একটি রাত কাটাতেও আমি অপছন্দ করি।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: ইবনু মাজাহ, সাদাকাত ২৪০৯; আবূ নুয়াইম, হিলইয়া ৩/২০৪; বুখারী, কাবীর ৩/৪৭৬; তাবারাণী, আওসাত নং ৪৬০; হাকিম ২/২৩; হাকিম বলেন, হাদীসটির সনদ সহীহ যদিও তারা বর্ণনা করেননি।’ যাহাবী তা বজায় রেখেছেন। হাফিজ (ইবনু হাজার) ফাতহুল বারী ৫/৫৪ তে এ হাদীস উল্লেখ করে বলেছেন: এর সনদ হাসান।’

 

এর শাহিদ হাদীস রয়েছে মায়মুনাহ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে, আমরা যার তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাওসিলী নং ৭০৮৩; সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫০৪১; মাওয়ারিদুয যাম’আন নং ১১৫৭ তে।

باب فِي الدَّائِنُ مُعَانٌ

أَخْبَرَنَا إِبْرَاهِيمُ بْنُ الْمُنْذِرِ الْحِزَامِيُّ حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ إِسْمَعِيلَ بْنِ أَبِي فُدَيْكٍ حَدَّثَنَا سَعِيدُ بْنُ سُفْيَانَ مَوْلَى الْأَسْلَمِيِّينَ عَنْ جَعْفَرِ بْنِ مُحَمَّدٍ عَنْ أَبِيهِ عَنْ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ جَعْفَرٍ قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ إِنَّ اللَّهَ مَعَ الدَّائِنِ حَتَّى يُقْضَى دَيْنُهُ مَا لَمْ يَكُنْ فِيمَا يَكْرَهُ اللَّهُ قَالَ وَكَانَ عَبْدُ اللَّهِ بْنُ جَعْفَرٍ يَقُولُ لِخَازِنِهِ اذْهَبْ فَخُذْ لِي بِدَيْنٍ فَإِنِّي أَكْرَهُ أَنْ أَبِيتَ لَيْلَةً إِلَّا وَاللَّهُ مَعِي بَعْدَمَا سَمِعْتُ مِنْ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ

أخبرنا إبراهيم بن المنذر الحزامي حدثنا محمد بن إسمعيل بن أبي فديك حدثنا سعيد بن سفيان مولى الأسلميين عن جعفر بن محمد عن أبيه عن عبد الله بن جعفر قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم إن الله مع الدائن حتى يقضى دينه ما لم يكن فيما يكره الله قال وكان عبد الله بن جعفر يقول لخازنه اذهب فخذ لي بدين فإني أكره أن أبيت ليلة إلا والله معي بعدما سمعت من رسول الله صلى الله عليه وسلم

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবদুল্লাহ ইবনু জা‘ফার (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৩৪

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৫৬. ধার-কর্জ পরিশোধ করতে হবে

২৬৩৪. সামুরা রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। রাসলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ “কোন ব্যক্তি (ধারে) যা গ্রহণ করেছে, তা পরিশোধ না করা পর্যন্ত তার জন্য সে দায়ী থাকবে।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ যয়ীফ।

 

তাখরীজ: তাবারাণী, কাবীর ৭/২০৮ নং ২৮৬২; ইবনু আবী শাইবা ৬/১৪৬ নং ৬০৪; আহমাদ ৫/৮. ১২, ১৩; আবূ দাউদ, বুয়ূ ৩৫৬১; তিরমিযী, বুয়ূ ১২৬৬;

 

নাসাঈ, আল কুবরা ৫৭৮৩; ইবনু মাজাহ, সাদাকাহ ২৪০০; ইবনুল জারুদ, আল মুনতাক্বা নং ১০২৪; হাকিম ২/৪৭; বাইহাকী, আরিয়াহ ৬/৯০; কুদাঈ, মুসনাদুশ শিহাব নং ২৮০, ২৮১।

باب فِي الْعَارِيَّةُ مُؤَدَّاةٌ

أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ الْمِنْهَالِ حَدَّثَنَا يَزِيدُ بْنُ زُرَيْعٍ حَدَّثَنَا سَعِيدُ بْنُ أَبِي عَرُوبَةَ عَنْ قَتَادَةَ عَنْ الْحَسَنِ عَنْ سَمُرَةَ بْنِ جُنْدُبٍ قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَلَى الْيَدِ مَا أَخَذَتْ حَتَّى تُؤَدِّيَهُ

أخبرنا محمد بن المنهال حدثنا يزيد بن زريع حدثنا سعيد بن أبي عروبة عن قتادة عن الحسن عن سمرة بن جندب قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم على اليد ما أخذت حتى تؤديه

 হাদিসের মানঃ যঈফ (Dai’f)  বর্ণনাকারীঃ সামুরাহ ইবনু জুনদুব (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৩৫

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৫৭. আমানত আদায় করা এবং খিয়ানত থেকে বেঁচে থাকা

২৬৩৫. আবূ হুরাইরা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “যে তোমার নিকট আমানত রেখেছে তুমি তার নিকট সেই আমানত আদায় করে দাও। আর যে তোমার সঙ্গে খিয়ানত করেছে তার সঙ্গে তুমি খিয়ানত করো না।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ হাসান।

 

তাখরীজ: আবূ দাউদ, বুয়ূ ৩৫৩৫; তিরমিযী, বুয়ূ ১২৬৪; দারুকুতনী, ৩/৩৫; তাহাবী, মুশকিলিল আছার ২/৩৩৮; তাবারাণী, আওসাত নং ৩৬১৯; তামামু ফাওয়াইদাহ নং ৫৯৩; কুদাঈ, মুসনাদুশ শিহাব নং ৭৪২ হাকিম ২/৪৬; বাইহাকী, দাওয়াত ওয়াত তিবিইয়ান ১০/২৭১; শুয়াবুল ঈমান ৫২৫২; আবূ নুয়াইম, যিকরু তারীখ আসবাহান ১/২৬৯; আরও দেখুন, তারীখুল কাবীর ৪/৩৬০।

 

আর এর শাহিদ রয়েছে আনাস রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে, যা মাজমাউয যাওয়াইদ নং ৬৭৯২ তে। সেখানে আরও একটি শাহিদ হাদীস রয়েছে। ফলে এর দ্বারা হাদীসটি সহীহতে উন্নীত হয়। আল্লাহই ভাল জানেন।

باب فِي أَدَاءِ الْأَمَانَةِ وَاجْتِنَابِ الْخِيَانَةِ

أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ الْعَلَاءِ حَدَّثَنَا طَلْقُ بْنُ غَنَّامٍ عَنْ شَرِيكٍ وَقَيْسٍ عَنْ أَبِي حَصِينٍ عَنْ أَبِي صَالِحٍ عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ عَنْ النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ أَدِّ إِلَى مَنْ ائْتَمَنَكَ وَلَا تَخُنْ مَنْ خَانَكَ

أخبرنا محمد بن العلاء حدثنا طلق بن غنام عن شريك وقيس عن أبي حصين عن أبي صالح عن أبي هريرة عن النبي صلى الله عليه وسلم قال أد إلى من ائتمنك ولا تخن من خانك

 হাদিসের মানঃ হাসান (Hasan)  বর্ণনাকারীঃ আবূ হুরায়রা (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৩৬

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৫৮. যে ব্যক্তি কোনো কিছু ভেঙ্গে ফেলবে, তার দায়িত্ব এর অনুরূপ প্রদান করা

২৬৩৬. আনাস রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত যে, একদিন নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাঁর কোন এক সহধর্মিণীর কাছে ছিলেন। তাঁর অপর এক সহধর্মিণী খাদিমের মারফত এক পাত্রে ’ছারীদ’ (এক প্রকার খাবার) পাঠালেন। তিনি (সেই সহধর্মিণী) আঘাত করে পাত্রটি ভেঙ্গে ফেলেন। তখন নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম (তা জোড়া লাগিয়ে) ’ছারীদ’ তুলে সেই পাত্রটিতে রাখতে লাগলেন এবং আর তিনি (সাথীদেরকে) বলেন, “তোমরা খাও, তোমাদের মায়ের আত্মমর্যাদায় আঘাত লেগেছে।” যে পর্যন্ত তিনি (তাঁর সহধর্মিণী) একটি ভাল পাত্র না নিয়ে আসলেন, সে পর্যন্ত নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম অপেক্ষা করলেন। এরপর তিনি পাত্রটি নিয়ে যার পাত্রটি ভেঙ্গে ফেলা হয়েছিলো, তাকে প্রদান করলেন।[1] আব্দুল্লাহ বলেন, আমার মতও তাই।

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ মুসলিমের শর্তানুযায়ী সহীহ।

 

তাখরীজ: বুখারী, মুযালিম ২৪৮১;

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ৩৩৩৯, ৩৭৭৪, ৩৮৪৯ তে।

باب مَنْ كَسَرَ شَيْئًا فَعَلَيْهِ مِثْلُهُ

أَخْبَرَنَا يَزِيدُ بْنُ هَارُونَ حَدَّثَنَا حُمَيْدٌ عَنْ أَنَسٍ قَالَ أَهْدَى بَعْضُ أَزْوَاجِ النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ إِلَيْهِ قَصْعَةً فِيهَا ثَرِيدٌ وَهُوَ فِي بَيْتِ بَعْضِ أَزْوَاجِهِ فَضَرَبَتْ الْقَصْعَةَ فَانْكَسَرَتْ فَجَعَلَ النَّبِيُّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَأْخُذُ الثَّرِيدَ فَيَرُدُّهُ فِي الصَّحْفَةِ وَهُوَ يَقُولُ كُلُوا غَارَتْ أُمُّكُمْ ثُمَّ انْتَظَرَ حَتَّى جَاءَتْ قَصْعَةٌ صَحِيحَةٌ فَأَخَذَهَا فَأَعْطَاهَا صَاحِبَةَ الْقَصْعَةِ الْمَكْسُورَةِ قَالَ عَبْد اللَّهِ نَقُولُ بِهَذَا

أخبرنا يزيد بن هارون حدثنا حميد عن أنس قال أهدى بعض أزواج النبي صلى الله عليه وسلم إليه قصعة فيها ثريد وهو في بيت بعض أزواجه فضربت القصعة فانكسرت فجعل النبي صلى الله عليه وسلم يأخذ الثريد فيرده في الصحفة وهو يقول كلوا غارت أمكم ثم انتظر حتى جاءت قصعة صحيحة فأخذها فأعطاها صاحبة القصعة المكسورة قال عبد الله نقول بهذا

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আনাস ইবনু মালিক (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৩৭

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৫৯. কুড়িয়ে পাওয়া বস্তু সম্পর্কে

২৬৩৭. সুফিয়ান ইবনু আব্দুল্লাহ ইবনু রবীয়াহ আস সাকাফী রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু এর দু’পুত্র আমর ও আসিম থেকে বর্ণিত যে, সুফিয়ান ইবনু আব্দুল্লাহ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু একটি চামড়ার ব্যাগ পেলেন এবং তা নিয়ে উমার ইবনুল খাত্তাব রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু এর নিকট আসলেন। তখন তিনি বললেন, তুমি এক বছর যাবত এটি (লোকদেরকে) অবহিত করতে থাকো। এরপর যদি তা কেউ (তার নিজের বলে) চিনে নেয়, তবে তো হলোই। তা না হলে সেটি তোমার। কিন্তু তা (কার তা) জানা না যাওয়ায় তিনি পরের বছরও তা নিয়ে হাজ্জের সময়ে তার সাথে সাক্ষাত করে বিষয়টি তার নিকট বর্ণনা করলেন। তখন উমার রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু বললেন: এটি তুমি নিয়ে যাও। কেননা, এর নির্দেশ দিয়েছেন স্বয়ং রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। তিনি বললেন, আমার এর কোনো প্রয়োজন নেই। তখন উমার রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু তা নিয়ে বায়তুল মালে জমা দিলেন।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ জাইয়্যেদ বা উত্তম।

 

তাখরীজ: তাহাবী, শারহু মা’আনিল আছার ৪/১৩৭, ১৩৮; ; মুশকিলিল আছার নং ৪৬৯৫, ৪৬৯৬; নাসাঈ, আল কুবরা ৫৮১৮বাইহাকী, লুকাতাহ ৬/১৮৭।

باب فِي اللُّقَطَةِ

أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ الْعَلَاءِ حَدَّثَنَا أَبُو أُسَامَةَ عَنْ الْوَلِيدِ بْنِ كَثِيرٍ قَالَ حَدَّثَنِي عَمْرُو بْنُ شُعَيْبٍ عَنْ عَمْرٍو وَعَاصِمٍ ابْنَيْ سُفْيَانَ بْنِ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ رَبِيعَةَ الثَّقَفِيِّ أَنَّ سُفْيَانَ بْنَ عَبْدِ اللَّهِ وَجَدَ عَيْبَةً فَأَتَى بِهَا عُمَرَ بْنَ الْخَطَّابِ فَقَالَ عَرِّفْهَا سَنَةً فَإِنْ عُرِفَتْ فَذَاكَ وَإِلَّا فَهِيَ لَكَ فَلَمْ تُعْرَفْ فَلَقِيَهُ بِهَا فِي الْعَامِ الْمُقْبِلِ فِي الْمَوْسِمِ فَذَكَرَهَا لَهُ فَقَالَ عُمَرُ هِيَ لَكَ فَإِنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَمَرَنَا بِذَلِكَ قَالَ لَا حَاجَةَ لِي بِهَا فَقَبَضَهَا عُمَرُ فَجَعَلَهَا فِي بَيْتِ الْمَالِ

أخبرنا محمد بن العلاء حدثنا أبو أسامة عن الوليد بن كثير قال حدثني عمرو بن شعيب عن عمرو وعاصم ابني سفيان بن عبد الله بن ربيعة الثقفي أن سفيان بن عبد الله وجد عيبة فأتى بها عمر بن الخطاب فقال عرفها سنة فإن عرفت فذاك وإلا فهي لك فلم تعرف فلقيه بها في العام المقبل في الموسم فذكرها له فقال عمر هي لك فإن رسول الله صلى الله عليه وسلم أمرنا بذلك قال لا حاجة لي بها فقبضها عمر فجعلها في بيت المال

 হাদিসের মানঃ হাসান (Hasan)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৩৮

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬০. হজ্জে কোন বস্তু কুড়িয়ে নেওয়া নিষিদ্ধ

২৬৩৮. আবূ হুরায়রা রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণনা করেন, মক্কা বিজয়ের কালে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দাঁড়িয়ে বললেনঃ “আল্লাহ তা’আলা মক্কা থেকে হাতী (বাহিনী) কে রোধ করেছেন এবং মক্কাবাসীদের উপর রাসূলুল্লাহ্‌ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এবং মু’মিনগনকে (যুদ্ধের মাধ্যমে) ক্ষমতাশালী করেছেন। জেনে রাখ, আমার পূর্বে কারো জন্য মক্কা (নগরীতে লড়াই করা) হালাল করা হয়নি এবং আমার পরও কারো জন্য হালাল হবে না। জেনে রাখ, আমার এই (কথা বলার) মুহূর্তে আবার তা হারাম হয়ে গেছে। সেখানকার কোন কাঁটা ও কোন গাছপালা কাটা যাবে না এবং সেখানে পড়ে থাকা কোন বস্তু কুড়িয়ে নেওয়া যাবেনা। তবে ঘোষণা করার জন্য নিতে পারবে।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ। হাদীসটি বুখারী ও মুসলিম কর্তৃক সম্মিলিত ভাবে বর্ণিত।

 

তাখরীজ: বুখারী, ইলম ১১২; মুসলিম, হাজ্জ ১৩৫৫।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ৫৯৫৪ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৩৭১৫ তে।

باب فِي النَّهْيِ عَنْ لُقَطَةِ الْحَاجِّ

أَخْبَرَنَا مُعَاذُ بْنُ هَانِئٍ مِنْ أَهْلِ الْبَصْرَةِ حَدَّثَنَا حَرْبُ بْنُ شَدَّادٍ حَدَّثَنَا يَحْيَى بْنُ أَبِي كَثِيرٍ حَدَّثَنَا أَبُو سَلَمَةَ حَدَّثَنَا أَبُو هُرَيْرَةَ أَنَّهُ عَامَ فُتِحَتْ مَكَّةُ قَامَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فَقَالَ إِنَّ اللَّهَ حَبَسَ عَنْ مَكَّةَ الْفِيلَ وَسَلَّطَ عَلَيْهِمْ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ وَالْمُؤْمِنِينَ أَلَا وَإِنَّهَا لَمْ تَحِلَّ لِأَحَدٍ قَبْلِي وَلَا تَحِلُّ لِأَحَدٍ بَعْدِي أَلَا وَإِنَّهَا سَاعَتِي هَذِهِ حَرَامٌ لَا يُخْتَلَى خَلَاهَا وَلَا يُعْضَدُ شَجَرُهَا وَلَا تُلْتَقَطُ سَاقِطَتُهَا إِلَّا لِمُنْشِدٍ

أخبرنا معاذ بن هانئ من أهل البصرة حدثنا حرب بن شداد حدثنا يحيى بن أبي كثير حدثنا أبو سلمة حدثنا أبو هريرة أنه عام فتحت مكة قام رسول الله صلى الله عليه وسلم فقال إن الله حبس عن مكة الفيل وسلط عليهم رسول الله صلى الله عليه وسلم والمؤمنين ألا وإنها لم تحل لأحد قبلي ولا تحل لأحد بعدي ألا وإنها ساعتي هذه حرام لا يختلى خلاها ولا يعضد شجرها ولا تلتقط ساقطتها إلا لمنشد

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ হুরায়রা (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৩৯

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬১. হারানো বস্তু সম্পর্কে

২৬৩৯. জারুদ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত আছে, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন: “মুসলিমের হারানো বস্তু জাহান্নামের লেলিহান (অগ্নি) শিখা সমতুল্য।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: তাবারাণী, কাবীর ২/২৬৫ নং ২১০৯ (সনদ সহীহ), ২১১০, ২১১১, ২১১২, ২১১৩, ২১১৪, ২১১৫, ২১১৬, ২১১৭; ইবনুল কানি’, মু’জামুস সাহাবাহ নং ১৬৪; আব্দুর রাযযাক নং ১৮৬০৩; বাইহাকী, লুকাতাহ ৬/১৯১।

 

আমরা এর তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাওসিলী নং ১৫৩৯; সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৪৮৮৭; মাওয়ারিদুয যাম’আন নং ১১৭০ ও মাজমাউয যাওয়াইদ নং ৬৯২৮ তে।

باب فِي الضَّالَّةِ

حَدَّثَنَا سَعِيدُ بْنُ عَامِرٍ عَنْ شُعْبَةَ عَنْ خَالِدٍ الْحَذَّاءِ عَنْ يَزِيدَ بْنِ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ الشِّخِّيرِ عَنْ أَبِي مُسْلِمٍ عَنْ الْجَارُودِ قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ ضَالَّةُ الْمُسْلِمِ حَرَقُ النَّارِ

حدثنا سعيد بن عامر عن شعبة عن خالد الحذاء عن يزيد بن عبد الله بن الشخير عن أبي مسلم عن الجارود قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم ضالة المسلم حرق النار

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৪০

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬১. হারানো বস্তু সম্পর্কে

২৬৪০. জারুদ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত আছে, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন: “মুসলিমের হারানো বস্তু জাহান্নামের লেলিহান (অগ্নি) শিখা সমতুল্য। মুসলিমের হারানো বস্তু জাহান্নামের লেলিহান (অগ্নি) শিখা সমতুল্য। মুসলিমের হারানো বস্তু জাহান্নামের লেলিহান (অগ্নি) শিখা সমতুল্য। তোমরা এর নিকটবর্তী হবে না।” তখন এক ব্যক্তি বললো, ইয়া রাসূলুল্লাহ! আমরা যে হারানো বস্তু কুড়িয়ে পাই, (তা কী করতে হবে)? তিনি বললেন, “এর ঘোষণা দিতে থাকবে; আর তা গোপন করবে না এবং তা লুকিয়ে রাখবে না। এরপর যদি এর মালিক আসে, তবে তাকে তা অর্পণ করবে। আর তা না হলে তা আল্লাহর মাল, আল্লাহ তা যাকে ইচ্ছা দান করবেন।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: তাবারাণী, কাবীর নং ২১১৯, ২১২০, ২১২১, ২১২২;

 

তাখরীজের জন্য দেখুন, আগের টীকাটি এবং মাজমাউয যাওয়াইদ নং ৬৯২৯ তে।

باب فِي الضَّالَّةِ

أَخْبَرَنَا يَزِيدُ بْنُ هَارُونَ أَخْبَرَنَا الْجُرَيْرِيُّ عَنْ أَبِي الْعَلَاءِ عَنْ أَبِي مُسْلِمٍ الْجَذْمِيِّ عَنْ الْجَارُودِ قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ ضَالَّةُ الْمُسْلِمِ حَرَقُ النَّارِ ضَالَّةُ الْمُسْلِمِ حَرَقُ النَّارِ ضَالَّةُ الْمُسْلِمِ حَرَقُ النَّارِ لَا تَقْرَبَنَّهَا قَالَ فَقَالَ رَجُلٌ يَا رَسُولَ اللَّهِ اللُّقَطَةُ نَجِدُهَا قَالَ أَنْشِدْهَا وَلَا تَكْتُمْ وَلَا تُغَيِّبْ فَإِنْ جَاءَ رَبُّهَا فَادْفَعْهَا إِلَيْهِ وَإِلَّا فَمَالُ اللَّهِ يُؤْتِيهِ مَنْ يَشَاءُ

أخبرنا يزيد بن هارون أخبرنا الجريري عن أبي العلاء عن أبي مسلم الجذمي عن الجارود قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم ضالة المسلم حرق النار ضالة المسلم حرق النار ضالة المسلم حرق النار لا تقربنها قال فقال رجل يا رسول الله اللقطة نجدها قال أنشدها ولا تكتم ولا تغيب فإن جاء ربها فادفعها إليه وإلا فمال الله يؤتيه من يشاء

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৪১

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬২. যে ব্যক্তি কোনো মুসলিমের সম্পদ (মিথ্যা) কসমের মাধ্যমে দখল করে তার সম্পর্কে

২৬৪১. আবূ উমামা আল-হারিসী রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বলতে শুনেছেনঃ “কোন ব্যক্তি অপর মুসলিমের প্রাপ্য স্বত্ব মিথ্যা শপথের মাধ্যমে কর্তন করে নিলে আল্লাহ তার জন্য জাহান্নাম তার জন্য অবধারিত করে দিবেন এবং জান্নাত হারাম করে দিবেন। উপস্থিত লোকজনের মধ্য থেকে এক ব্যক্তি বললো, ইয়া রাসূলাল্লাহ! যদি তা সামান্য জিনিস হয়। তিনি বললেনঃ “যদি তা পিলু গাছের একটি কর্তিত ডালও হয়।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: মুসলিম, ঈমান ১৩৭।

 

আমরা এর তাখরীজ দিয়েছি সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫০৮৭ তে।

 

সংযোজনী: এছাড়াও, আবূ আওয়ানাহ ১/৩২; বাইহাকী, মা’রিফাহ নং ২০০৬১; ইবনু হাযম, আল মুহাল্লা ৯/৩৯১; ইবনু আবী শাইবা ৭/৩ নং ২১৮৪। পরবর্তী টীকাটিও দেখুন।

 

এর শাহিদ হাদীস রয়েছে আব্দুল্লাহ ইবনু মাসউদ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে, আমরা যার তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাওসিলী নং ৫১১৪; সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫০৮৪, ৫০৮৫, ৫০৮৬; মুসনাদুল হুমাইদী নং ৯৫ তে।

باب فِيمَنْ اقْتَطَعَ مَالَ امْرِئٍ مُسْلِمٍ بِيَمِينِهِ

أَخْبَرَنَا أَحْمَدُ بْنُ يَعْقُوبَ الْكُوفِيُّ عَنْ إِسْمَعِيلَ بْنِ جَعْفَرٍ عَنْ الْعَلَاءِ عَنْ مَعْبَدِ بْنِ كَعْبٍ السَّلَمِيِّ عَنْ أَخِيهِ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ كَعْبٍ عَنْ أَبِي أُمَامَةَ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ مَنْ اقْتَطَعَ حَقَّ امْرِئٍ مُسْلِمٍ بِيَمِينِهِ فَقَدْ أَوْجَبَ اللَّهُ لَهُ النَّارَ وَحَرَّمَ عَلَيْهِ الْجَنَّةَ فَقَالَ لَهُ رَجُلٌ وَإِنْ كَانَ شَيْئًا يَسِيرًا يَا رَسُولَ اللَّهِ قَالَ وَإِنْ قَضِيبٌ مِنْ أَرَاكٍ

أخبرنا أحمد بن يعقوب الكوفي عن إسمعيل بن جعفر عن العلاء عن معبد بن كعب السلمي عن أخيه عبد الله بن كعب عن أبي أمامة أن رسول الله صلى الله عليه وسلم قال من اقتطع حق امرئ مسلم بيمينه فقد أوجب الله له النار وحرم عليه الجنة فقال له رجل وإن كان شيئا يسيرا يا رسول الله قال وإن قضيب من أراك

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ উমামাহ হারিসী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৪২

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬২. যে ব্যক্তি কোনো মুসলিমের সম্পদ (মিথ্যা) কসমের মাধ্যমে দখল করে তার সম্পর্কে

২৬৪২. (অপর সূত্রে) আবূ উমামা আল-হারিসী রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বলতে শুনেছেনঃ এরপর তিনি অনুরূপ হাদীস বর্ণনা করেছেন।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: ইবনু আবী শাইবা ৭/৩ নং ২১৮৪; মুসলিম, ঈমান ১৩৭ (২১৯); ইবনু মাজাহ, আহকাম ২৩২৪; নাসাঈ, আল কুবরা ৫৯৮১;

 

তাবারানী, কাবীর নং ৭৯৯। পূর্ণ তাখরীজের জন্য আগের টীকাটি দেখুন।

باب فِيمَنْ اقْتَطَعَ مَالَ امْرِئٍ مُسْلِمٍ بِيَمِينِهِ

أَخْبَرَنَا عَبْدُ اللَّهِ بْنُ سَعِيدٍ حَدَّثَنَا أَبُو أُسَامَةَ عَنْ الْوَلِيدِ بْنِ كَثِيرٍ عَنْ مُحَمَّدِ بْنِ كَعْبِ بْنِ مَالِكٍ أَنَّهُ سَمِعَ أَخَاهُ عَبْدَ اللَّهِ بْنَ كَعْبِ بْنِ مَالِكٍ يُحَدِّثُ أَنَّ أَبَا أُمَامَةَ الْحَارِثِيَّ حَدَّثَهُ أَنَّهُ سَمِعَ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فَذَكَرَ نَحْوَهُ

أخبرنا عبد الله بن سعيد حدثنا أبو أسامة عن الوليد بن كثير عن محمد بن كعب بن مالك أنه سمع أخاه عبد الله بن كعب بن مالك يحدث أن أبا أمامة الحارثي حدثه أنه سمع رسول الله صلى الله عليه وسلم فذكر نحوه

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ উমামাহ হারিসী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৪৩

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬৩. মিথ্যা কসম সম্পর্কে

২৬৪৩. আবূ যারর রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূলূল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “আল্লাহ্তা’আলা কিয়ামত দিবসে তিনপ্রকার লোকের সাথে কথা বলবেন না, তাদের দিকে দৃষ্টিপাত করবেন না এবং তাদের তিনি পবিত্র করবেন না। আর তাদের জন্য রয়েছে যন্ত্রনাদায়ক আযাব।” আমি বললাম এরা কারা? ইয়া রাসূলাল্লাহ্! এরা তো হতাশা গ্রস্থ ও ক্ষতিগ্রস্থ। তিনি এর পুনরাবৃত্তি করলেন। তখন আমি বললাম, এরা কারা? ইয়া রাসূলাল্লাহ্! তিনি বললেন, “যে ব্যক্তি তার ইযার (লুঙ্গি, পাজামা- প্যান্ট) (গোড়ালীর নীচে) ঝুলিয়ে পরিধান করে; যে অনুগ্রহ করার করার পর খোটা দেয়; আর যে ব্যক্তি মিথ্যা কসমের মাধ্যমে তার পন্য বিক্রয় করে।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: আহমাদ ৫/১৪৮, ১৫৮, ১৬২, ১৭৭;ইবনু আবী শাইবা ৭/২২ নং ২২৪৩, ৮/৩৮৯ নং ৪৮৬৫ ও ৯/৯২ নং ৬৬৪২; মুসলিম, ঈমান ১০৬; আবূ দাউদ, লিবাস ৪০৮৭, ৪০৮৮; তিরমিযী, বুয়ূ ১২১১; নাসাঈ, বুয়ূ ৭/২৪৫; বাইহাকী, বুয়ূ ৫/২৬৫; ইবনু মাজাহ, তিজারাত ২২০৮ (যয়ীফ সনদে); আবূ আওয়ানাহ ১/৩৯; আবূ নুয়াইম, হিলইয়া ৭/১৩০; তাহাবী, মুশকিলিল আছার ৪/৩৭৮-৩৭৯।

باب فِي الْيَمِينِ الْكَاذِبَةِ

أَخْبَرَنَا أَبُو الْوَلِيدِ وَحَجَّاجٌ قَالَا حَدَّثَنَا شُعْبَةُ قَالَ حَدَّثَنِي عَلِيُّ بْنُ مُدْرِكٍ قَالَ سَمِعْتُ أَبَا زُرْعَةَ يُحَدِّثُ عَنْ خَرَشَةَ بْنِ الْحُرِّ عَنْ أَبِي ذَرٍّ قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ ثَلَاثَةٌ لَا يُكَلِّمُهُمْ اللَّهُ وَلَا يَنْظُرُ إِلَيْهِمْ يَوْمَ الْقِيَامَةِ وَلَا يُزَكِّيهِمْ وَلَهُمْ عَذَابٌ أَلِيمٌ فَقُلْتُ يَا رَسُولَ اللَّهِ مَنْ هُمْ خَابُوا وَخَسِرُوا فَأَعَادَهَا فَقُلْتُ مَنْ هُمْ يَا رَسُولَ اللَّهِ فَقَالَ الْمُسْبِلُ وَالْمَنَّانُ وَالْمُنَفِّقُ سِلْعَتَهُ بِالْحَلِفِ كَاذِبًا

أخبرنا أبو الوليد وحجاج قالا حدثنا شعبة قال حدثني علي بن مدرك قال سمعت أبا زرعة يحدث عن خرشة بن الحر عن أبي ذر قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم ثلاثة لا يكلمهم الله ولا ينظر إليهم يوم القيامة ولا يزكيهم ولهم عذاب أليم فقلت يا رسول الله من هم خابوا وخسروا فأعادها فقلت من هم يا رسول الله فقال المسبل والمنان والمنفق سلعته بالحلف كاذبا

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ যার আল-গিফারী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৪৪

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬৪. যে ব্যক্তি এক বিঘত পরিমাণ জমিও (অন্যায়ভাবে) দখল করে

২৬৪৪. সাঈদ ইবনু যায়দ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে বলতে শুনেছি, যে ব্যক্তি কারো এক বিঘত জমিও জুলুম করে কেড়ে নেয়, কিয়ামতের দিন এর সাত তবক জমিন তার গলায় লটকিয়ে দেয়া হবে।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ। হাদীসটি বুখারী ও মুসলিম কর্তৃক সম্মিলিত ভাবে বর্ণিত।

 

তাখরীজ: বুখারী, মাযালিম ১১২; মুসলিম, মাসাকাত ১৬১০।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ৯৪৯, ৯৫০, ৯৫১, ৯৫২, ৯৫৩, ৯৫৪, ৯৫৫, ৯৫৬, ৯৫৯ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৩১৯৪, ৩১৯৫, ৫১৪১, ৬৯৯৩, ৬৯৯৬ এবং মুসনাদুল হুমাইদী ৮৩ তে। পরবর্তী হাদীসটিও দেখুন।

باب مَنْ أَخَذَ شِبْرًا مِنْ الْأَرْضِ

أَخْبَرَنَا الْحَكَمُ بْنُ نَافِعٍ عَنْ شُعَيْبٍ عَنْ الزُّهْرِيِّ حَدَّثَنِي طَلْحَةُ بْنُ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ عَوْفٍ أَنَّ عَبْدَ الرَّحْمَنِ بْنَ سَهْلٍ أَخْبَرَهُ أَنَّ سَعِيدَ بْنَ زَيْدٍ قَالَ سَمِعْتُ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَقُولُ مَنْ ظَلَمَ مِنْ الْأَرْضِ شِبْرًا فَإِنَّهُ يُطَوَّقُهُ مِنْ سَبْعِ أَرَضِينَ

أخبرنا الحكم بن نافع عن شعيب عن الزهري حدثني طلحة بن عبد الله بن عوف أن عبد الرحمن بن سهل أخبره أن سعيد بن زيد قال سمعت رسول الله صلى الله عليه وسلم يقول من ظلم من الأرض شبرا فإنه يطوقه من سبع أرضين

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ সাঈদ ইবনু যায়দ (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৪৫

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬৫. যে ব্যক্তি পতিত জমি আবাদ করবে, তা তারই হবে

২৬৪৫. জাবির ইবনু আব্দুল্লাহ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত আছে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ “পড়ে থাকা (মালিকানাহীন) জমিকে যদি কোন লোকআবাদ করে তাহলে এতে তার জন্য বিনিময় (সাওয়াব) রয়েছে; আর যে সকল রিযিক সন্ধানী প্রাণী এ জমির ফসল থেকে খাবে, তা ঐ ব্যক্তির জন্য সাদাকারূপে গণ্য হবে।”[1] আবূ মুহাম্মদ বলেন: ’আফিয়াহ’ অর্থ: পাখি ও অন্যান্য প্রাণীকুল।

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ হাসান। তবে হাদীসটি সহীহ।

 

তাখরীজ: আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ১৮০৫, ২১৯৫ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫২০২, ৫২০৩, ৫২০৪ এবং মাওয়ারিদুয যাম’আন নং ১১৩৬, ১১৩৭, ১১৩৮ তে। ((প্রথম অংশ বর্ণনা করেছেন: তিরমিযী, আহকাম ১৩৭৮, ১৩৭৯; আবূ দাউদ, খারাজ ওয়াল ইমারাহ ৩০৭৪; আহমাদ ৩/৩০৪, ৩৩৮ ও অন্যান্যরা। আর দ্বিতীয় অংশের শাহিদ বর্ণনা রয়েছে: আনাস রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে তিরমিযী, আহকাম ১৩৮২ তে, যেখানে অনাবাদী জমি’র কথা উল্লেখ ছাড়াই জমিতে চাষাবাদের ফসল হতে মানুষ অথবা পশু-পাখি খেয়ে নিলে তা সাদাকা স্বরুপ হবে বলে বর্ণিত হয়েছে। তিরমিযী বলেন: এ বাবে আবূ আইয়ুব, উম্মু মুবাশ্বির ও যাইদ ইবনু খালিদ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতেও হাদীস বর্ণিত আছে, আর আনাস রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত হাদীসটি হাসান সহীহ।–অনুবাদক))

باب مَنْ أَحْيَا أَرْضًا مَيْتَةً فَهِيَ لَهُ

أَخْبَرَنَا عَبْدُ اللَّهِ بْنُ سَعِيدٍ حَدَّثَنَا أَبُو أُسَامَةَ عَنْ هِشَامِ بْنِ عُرْوَةَ قَالَ أَخْبَرَنِي عُبَيْدُ اللَّهِ بْنُ عَبْدِ الرَّحْمَنِ بْنِ رَافِعٍ أَنَّ جَابِرَ بْنَ عَبْدِ اللَّهِ أَخْبَرَهُ عَنْ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ مَنْ أَحْيَا أَرْضًا مَيْتَةً فَلَهُ فِيهَا أَجْرٌ وَمَا أَكَلَتْ الْعَافِيَةُ مِنْهَا فَلَهُ فِيهَا صَدَقَةٌ قَالَ أَبُو مُحَمَّد الْعَافِيَةُ الطَّيْرُ وَغَيْرُ ذَلِكَ

أخبرنا عبد الله بن سعيد حدثنا أبو أسامة عن هشام بن عروة قال أخبرني عبيد الله بن عبد الرحمن بن رافع أن جابر بن عبد الله أخبره عن رسول الله صلى الله عليه وسلم قال من أحيا أرضا ميتة فله فيها أجر وما أكلت العافية منها فله فيها صدقة قال أبو محمد العافية الطير وغير ذلك

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ জাবির ইবনু আবদুল্লাহ আনসারী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৪৬

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬৬. জায়গির সম্পর্কে

২৬৪৬. আবইয়াদ ইবনু হাম্মাল রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। ’সাদ্দ মা’রিব’ নামক লবণ খনির কিছু জমি জায়গিররূপে দেওয়ার জন্য তিনি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর নিকট আবেদন করলেন। ফলে তিনি তাকে সেটি জায়গিররূপে প্রদান করলেন। অতঃপর আকরা ইবনু হাবিস আত-তামীমী রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু এসে বলেন, ইয়া নবীয়াল্লাহ! জাহিলী যুগে আমি লবণের খনিটিতে গিয়েছিলাম। ঐ এলাকায় কোন পানি নাই। যে ব্যক্তিই সেখানে যায় সে-ই কিছু লবণ সংগ্রহ করে নেয়। তা প্রবাহিত পানির মতই (স্থায়ী)। (এ কথা শুনে) রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আবইয়াদের নিকট লবনের জমির চুক্তি প্রত্যাহার করতে চাইলেন।

তখন আমি বললাম: আমি আপনার সাথে চুক্তি প্রত্যাহার করতে প্রস্তুত এই শর্তে যে, সেটিকে আপনি আমার পক্ষ থেকে সাদাকা হিসেবে গণ্য করবেন। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ “তা তোমার পক্ষ থেকে সাদাকা হিসাবেই গণ্য হবে। আর তা তো প্রবহমান পানির ন্যায়, যে-ই সেখানে যাবে, সে তা নিতে পারবে।”

তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার থেকে সেটি ফেরত নেয়ার বিনিময়ে তাকে ’জাউফি মুরাদ’ নামক স্থানের এক খন্ড জমি ও একটি খেজুর বাগান জায়িগিররূপে দান করেন।

অধস্তন রাবী ফারাজ বলেন, সেটা বর্তমানেও সেভাবেই আছে। যে-ই সেখানে যায়, সে তা থেকে সংগ্রহ করে।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ হাসান।

 

তাখরীজ: আবূ দাউদ, খারাজ ৩০৬৪, ৩০৬৬; দারুকুতনী ৩/৭৬; ইবনু মাজাহ, রুহন ২৪৭৫; তিরমিযী, আহকাম ১৩৮০; ইবনু আবী আসিম, আহাদ ওয়াল মাছানী নং ২৪৭০; তাবারাণী, কাবীর ১/২৭৮ নং ৮০৮; দারুকুতনী ৪/২২১; বুখারী, কাবীর ২/৫৯; ইবনুল কানি’, মু’জামুস সাহাবাহ ৫৯; বাইহাকী, আল মা’রিফাহ নং ১২২২২; আবী উবাইদ, কিতাবুল আমওয়াল ৬৮৫।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৪৪৯৯ এবং মাওয়ারিদুয যাম’আন নং ১১৪০, ১১৪২ তে।

باب فِي الْقَطَائِعِ

أَخْبَرَنَا عَبْدُ اللَّهِ بْنُ الزُّبَيْرِ الْحُمَيْدِيُّ حَدَّثَنَا الْفَرَجُ بْنُ سَعِيدِ بْنِ عَلْقَمَةَ بْنِ سَعِيدِ بْنِ أَبْيَضَ بْنِ حَمَّالٍ السَّبَائِيُّ الْمَأْرِبِيُّ حَدَّثَنِي عَمِّي ثَابِتُ بْنُ سَعِيدِ بْنِ أَبْيَضَ أَنَّ أَبَاهُ سَعِيدَ بْنَ أَبْيَضَ حَدَّثَهُ عَنْ أَبْيَضَ بْنِ حَمَّالٍ أَنَّهُ اسْتَقْطَعَ الْمِلْحَ مِنْ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ الَّذِي يُقَالُ لَهُ مِلْحُ شَذَّا بِمَأْرِبَ فَأَقْطَعَهُ ثُمَّ إِنَّ الْأَقْرَعَ بْنَ حَابِسٍ التَّمِيمِيَّ قَالَ يَا نَبِيَّ اللَّهِ إِنِّي قَدْ وَرَدْتُ الْمِلْحَ فِي الْجَاهِلِيَّةِ وَهُوَ بِأَرْضٍ لَيْسَ بِهَا مَاءٌ وَمَنْ وَرَدَهُ أَخَذَهُ وَهُوَ مِثْلُ مَاءِ الْعِدِّ فَاسْتَقَالَ النَّبِيُّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ الْأَبْيَضَ فِي قَطِيعَتِهِ فِي الْمِلْحِ فَقُلْتُ قَدْ أَقَلْتُهُ عَلَى أَنْ تَجْعَلَهُ مِنِّي صَدَقَةً فَقَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ هُوَ مِنْكَ صَدَقَةٌ وَهُوَ مِثْلُ مَاءِ الْعِدِّ مَنْ وَرَدَهُ أَخَذَهُ قَالَ وَقَطَعَ لَهُ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَرْضًا وَكَذَا بِالْجَوْفِ جَوْفِ مُرَادٍ مَكَانَهُ حِينَ أَقَالَهُ مِنْهُ قَالَ الْفَرَجُ فَهُوَ عَلَى ذَلِكَ مَنْ وَرَدَهُ أَخَذَهُ

أخبرنا عبد الله بن الزبير الحميدي حدثنا الفرج بن سعيد بن علقمة بن سعيد بن أبيض بن حمال السبائي المأربي حدثني عمي ثابت بن سعيد بن أبيض أن أباه سعيد بن أبيض حدثه عن أبيض بن حمال أنه استقطع الملح من رسول الله صلى الله عليه وسلم الذي يقال له ملح شذا بمأرب فأقطعه ثم إن الأقرع بن حابس التميمي قال يا نبي الله إني قد وردت الملح في الجاهلية وهو بأرض ليس بها ماء ومن ورده أخذه وهو مثل ماء العد فاستقال النبي صلى الله عليه وسلم الأبيض في قطيعته في الملح فقلت قد أقلته على أن تجعله مني صدقة فقال رسول الله صلى الله عليه وسلم هو منك صدقة وهو مثل ماء العد من ورده أخذه قال وقطع له رسول الله صلى الله عليه وسلم أرضا وكذا بالجوف جوف مراد مكانه حين أقاله منه قال الفرج فهو على ذلك من ورده أخذه

 হাদিসের মানঃ হাসান (Hasan)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৪৭

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬৬. জায়গির সম্পর্কে

২৬৪৭. আলকামাহ ইবনু ওয়ায়িল হতে তার পিতার সূত্রে বর্ণিত যে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাকে এক খন্ড জমি জায়গীর হিসেবে দান করেন। তিনি (রাবী) বলেন, তখন তিনি মুয়াবিয়া রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু কে আমার সাথে পাঠান এবং বলেন, “এটি তাকেই দিয়ে দাও।”[1] ইয়াহইয়া বলেন, মুহাম্মদ ইবনু বাশার গুনদার হতে এ হাদীসটি বর্ণনা করেন।

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ মুসলিমের শর্তানুযায়ী সহীহ।

 

তাখরীজ: আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৭২০৫ তে। এটি মাওয়ারিদ-এর শর্তানুযায়ীও, তবে হাইছামী তাতে এটি বর্ণনা করেননি।

باب فِي الْقَطَائِعِ

أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ بَشَّارٍ حَدَّثَنَا غُنْدَرٌ حَدَّثَنَا شُعْبَةُ عَنْ سِمَاكِ بْنِ حَرْبٍ عَنْ عَلْقَمَةَ بْنِ وَائِلٍ عَنْ أَبِيهِ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَقْطَعَهُ أَرْضًا قَالَ فَأَرْسَلَ مَعِي مُعَاوِيَةَ قَالَ أَعْطِهَا إِيَّاهُ قَالَ يَحْيَى حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ بَشَّارٍ حَدَّثَنَا غُنْدَرٌ بِهَذَا الْحَدِيثِ

أخبرنا محمد بن بشار حدثنا غندر حدثنا شعبة عن سماك بن حرب عن علقمة بن وائل عن أبيه أن رسول الله صلى الله عليه وسلم أقطعه أرضا قال فأرسل معي معاوية قال أعطها إياه قال يحيى حدثنا محمد بن بشار حدثنا غندر بهذا الحديث

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আলকামা ইবনে ওয়াইল আল-হাদরামী (রহঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৪৮

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬৭. বৃক্ষরোপণের ফযীলত সম্পর্কে

২৬৪৮. জাবির ইবনে আবদুল্লাহ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু বলেন, যাইদ ইবনু হারিছাহ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু এর স্ত্রী উম্মু মুবাশশির আমার নিকট বর্ণনা করেন, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমার দেয়াল ঘেরা বাগানে প্রবেশ করেন। তিনি বললেনঃ “হে উম্মু মুবাশশির! এই গাছগুলি কে লাগিয়েছে, কোন মুসলিম না কাফের?” আমি বললাম, মুসলিম। তিনি বললেনঃ “যখন কোন মুসলিম কোন গাছ লাগায় আর তা থেকে কোন মানুষ, কিংবা চতুষ্পদ জন্তু অথবা কোন পাখী খায়, তা তার জন্য সদকা হিসাবে গন্য হবে।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: আহমাদ ৬/৩৬২, ৪২০; মুসলিম, মাসাকাত ১৫৫২।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ২২১৩, ২২৪৫ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৩৩৬৮, ৩৩৬৯ এবং মুসনাদুল হুমাইদী ১৩১১ তে।

باب فِي فَضْلِ الْغَرْسِ

أَخْبَرَنَا الْمُعَلَّى بْنُ أَسَدٍ حَدَّثَنَا عَبْدُ الْوَاحِدِ بْنُ زِيَادٍ حَدَّثَنَا سُلَيْمَانُ الْأَعْمَشُ حَدَّثَنَا أَبُو سُفْيَانَ قَالَ سَمِعْتُ جَابِرَ بْنَ عَبْدِ اللَّهِ يَقُولُ حَدَّثَتْنِي أُمُّ مُبَشِّرٍ امْرَأَةُ زَيْدِ بْنِ حَارِثَةَ قَالَتْ دَخَلَ عَلَيَّ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فِي حَائِطٍ لِي فَقَالَ يَا أُمَّ مُبَشِّرٍ أَمُسْلِمٌ غَرَسَ هَذَا أَمْ كَافِرٌ قُلْتُ مُسْلِمٌ فَقَالَ مَا مِنْ مُسْلِمٍ يَغْرِسُ غَرْسًا فَيَأْكُلُ مِنْهُ إِنْسَانٌ أَوْ دَابَّةٌ أَوْ طَيْرٌ إِلَّا كَانَتْ لَهُ صَدَقَةٌ

أخبرنا المعلى بن أسد حدثنا عبد الواحد بن زياد حدثنا سليمان الأعمش حدثنا أبو سفيان قال سمعت جابر بن عبد الله يقول حدثتني أم مبشر امرأة زيد بن حارثة قالت دخل علي رسول الله صلى الله عليه وسلم في حائط لي فقال يا أم مبشر أمسلم غرس هذا أم كافر قلت مسلم فقال ما من مسلم يغرس غرسا فيأكل منه إنسان أو دابة أو طير إلا كانت له صدقة

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ জাবির ইবনু আবদুল্লাহ আনসারী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৪৯

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬৮. (পিলু গাছের ডাল ও পাতা লোকদের থেকে) সংরক্ষণ করা সম্পর্কে

২৬৪৯. আবয়ায ইবনু হাম্মাল রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর নিকট পিলু বৃক্ষ সংরক্ষণ করা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেন। তখন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামবলেনঃ “পিলু বৃক্ষ সংরক্ষণ করা যাবে না।” তখন তিনি (ইবন হাম্মাল) বলেনঃ আমার বেড়ার মধ্যকার পীলু গাছ? তখন নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ পিলু বৃক্ষ সংরক্ষণ করা যাবে না।”[1] রাবী ফারাজ বলেনঃ ইবনু আবইয়াদ ’আমার বেড়ার মধ্যকার’ দ্বারা বুঝিয়েছেন: ঐ শস্য ক্ষেতকে, যার চারদিক থেকে ঘেরা ছিল।

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ হাসান।

 

তাখরীজ: আবূ দাউদ, খারাজ ৩০৬৬; ইবনু আবী আসিম, আহাদ ওয়াল মাছানী নং ২৪৭২। এটি গত ২৬৪৩ নং হাদীসের অংশবিশেষ। সেখানে পূর্ণ তাখরীজ দেখুন।

باب فِي الْحِمَى

أَخْبَرَنَا عَبْدُ اللَّهِ بْنُ الزُّبَيْرِ حَدَّثَنَا الْفَرَجُ بْنُ سَعِيدٍ قَالَ أَخْبَرَنِي عَمِّي ثَابِتُ بْنُ سَعِيدٍ عَنْ أَبِيهِ سَعِيدٍ عَنْ جَدِّهِ أَبْيَضَ بْنِ حَمَّالٍ أَنَّهُ سَأَلَ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَنْ حِمَى الْأَرَاكِ فَقَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ لَا حِمَى فِي الْأَرَاكِ فَقَالَ أَرَاكَةٌ فِي حِظَارِي فَقَالَ النَّبِيُّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ لَا حِمَى فِي الْأَرَاكِ قَالَ فَرَجٌ يَعْنِي أَبْيَضُ بِحِظَارِي الْأَرْضَ الَّتِي فِيهَا الزَّرْعُ الْمُحَاطُ عَلَيْهَا

أخبرنا عبد الله بن الزبير حدثنا الفرج بن سعيد قال أخبرني عمي ثابت بن سعيد عن أبيه سعيد عن جده أبيض بن حمال أنه سأل رسول الله صلى الله عليه وسلم عن حمى الأراك فقال رسول الله صلى الله عليه وسلم لا حمى في الأراك فقال أراكة في حظاري فقال النبي صلى الله عليه وسلم لا حمى في الأراك قال فرج يعني أبيض بحظاري الأرض التي فيها الزرع المحاط عليها

 হাদিসের মানঃ হাসান (Hasan)  বর্ণনাকারীঃ আবইয়ায ইবনু হাম্মাল মা’রিবী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৫০

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৬৯. পানি বিক্রয় করা নিষিদ্ধ সম্পর্কে

২৬৫০. আবুল মিনহাল (রহঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, ইয়াস ইবনে আবদ আল-মুযানী-যিনি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর সাহাবী ছিলেন, তাকে আমি বলতে শুনেছি যে, তিনি (কিছু লোককে পানি বিক্রয় করতে দেখে) বলেন, তোমরা পানি বিক্রয় করো না। কেননা, আমি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে পানি বিক্রয় করতে নিষেধ করতে শুনেছি।[1] আমর ইবনু দীনার বলেন, আমি জানি না কোন্ পানি। তিনি বলেন: তিনি বলতেন: আমি জানি না যে তা প্রবহমান পানি, নাকি (কুপের) পানের পানি।

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ বুখারীর শর্তানুযায়ী সহীহ।

 

তাখরীজ: আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৪৯৫২ এবং মাওয়ারিদুয যাম’আন নং ১১১৭ এবং মুসনাদুল হুমাইদী ৯৩৬ তে। ((আহমাদ ৩/৪১৭, ৪/১৩৮; আবূ দাউদ, বুয়ূ ৩৪৭৮; তিরমিযী, বুয়ূ ১২৭১; নাসাঈ, বুয়ূ, নং ৪৬৪১; ইবনু মাজাহ ২৪৭৬; হাকিম ২/৬১ …।–ফাতহুল মান্নান হা/২৭৭৬ এর টীকা হতে। -অনুবাদক))

باب فِي النَّهْيِ عَنْ بَيْعِ الْمَاءِ

حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ يُوسُفَ حَدَّثَنَا ابْنُ عُيَيْنَةَ عَنْ عَمْرِو بْنِ دِينَارٍ عَنْ أَبِي الْمِنْهَالِ قَالَ سَمِعْتُ إِيَاسَ بْنَ عَبْدٍ الْمُزَنِيَّ وَكَانَ مِنْ أَصْحَابِ النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ لَا تَبِيعُوا الْمَاءَ فَإِنِّي سَمِعْتُ النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَنْهَى عَنْ بَيْعِ الْمَاءِ وَقَالَ عَمْرُو بْنُ دِينَارٍ لَا نَدْرِي أَيَّ مَاءٍ قَالَ يَقُولُ لَا أَدْرِي مَاءً جَارِيًا أَوْ الْمَاءَ الْمُسْتَقَى

حدثنا محمد بن يوسف حدثنا ابن عيينة عن عمرو بن دينار عن أبي المنهال قال سمعت إياس بن عبد المزني وكان من أصحاب النبي صلى الله عليه وسلم قال لا تبيعوا الماء فإني سمعت النبي صلى الله عليه وسلم ينهى عن بيع الماء وقال عمرو بن دينار لا ندري أي ماء قال يقول لا أدري ماء جاريا أو الماء المستقى

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ মিনহাল (রহঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৫১

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৭০. যে সকল বিষয় থেকে বারণ করা হালাল নয়

২৬৫১. বুহায়সাহ (রহঃ) তার পিতার সূত্রে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে বর্ণনা করেন যে, একদা তিনি (তার পিতা) নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর অনুমতি নিয়ে তাঁর জামার অভ্যন্তরে ঢুকে যান–(বর্ণনাকারী উছমান বলেছেন) এবং তাঁর দেহ মুবারকের সংগে সেঁটে যান। এ সময় তিনি বলেনঃ এমন কোন বস্তু আছে যা দিতে নিষেধ করা যায় না? তিনি বলেনঃ “পানি এবং লবন।” এরপর তিনি বলেনঃ এমন কোন বস্তু আছে যা দিতে নিষেধ করা যায় না? তিনি বলেনঃ “(তা) এই যে, তুমি যত ভাল কাজ করবে, তা তোমার জন্য ততই উত্তম।”

এরপর তিনি বলেনঃ এমন কোন বস্তু আছে যা দিতে নিষেধ করা যায় না? তিনি বলেনঃ “(তা) এই যে, তুমি যত ভাল কাজ করবে, তা তোমার জন্য ততই উত্তম।” (এভাবে বলতে বলতে) তিনি ’লবন ও পানি’র কথায় এসে থামলেন।[1]আব্দুল্লাহ কে বলা হলো, আপনিও কি তাই বলেন? তখন তিনি তার মাথা দ্বারা ইশারা করলেন।

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ জাইয়্যেদ বা উত্তম।

 

তাখরীজ: আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ৭১৭৭ তে। এছাড়াও, ইবনু হাযম, আল মুহাল্লা ৯/৫৪;

 

((আহমাদ ৩/৪৮০, ৪৮১; আবূ দাউদ, বুয়ূ ৩৪৭৬; তিরমিযী, বুয়ূ ১২৭১;…।–ফাতহুল মান্নান হা/২৭৭৭ এর টীকা হতে।–অনুবাদক))

باب فِي الَّذِي لَا يَحِلُّ مَنْعُهُ

حَدَّثَنَا عُثْمَانُ بْنُ عُمَرَ حَدَّثَنَا كَهْمَسٌ عَنْ سَيَّارٍ رَجُلٍ مِنْ فَزَارَةَ عَنْ أَبِيهِ عَنْ بُهَيْسَةَ عَنْ أَبِيهَا عَنْ النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَنَّهُ أَتَى النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فَاسْتَأْذَنَهُ فَدَخَلَ بَيْنَهُ وَبَيْنَ قَمِيصِهِ وَقَدْ قَالَ عُثْمَانُ فَالْتَزَمَهُ فَقَالَ مَا الشَّيْءُ الَّذِي لَا يَحِلُّ مَنْعُهُ فَقَالَ الْمِلْحُ وَالْمَاءُ قَالَ مَا الشَّيْءُ الَّذِي لَا يَحِلُّ مَنْعُهُ قَالَ إِنْ تَفْعَلْ الْخَيْرَ خَيْرٌ لَكَ قَالَ مَا الشَّيْءُ الَّذِي لَا يَحِلُّ مَنْعُهُ قَالَ إِنْ تَفْعَلْ الْخَيْرَ خَيْرٌ لَكَ وَانْتَهَى إِلَى الْمِلْحِ وَالْمَاءِ قِيلَ لِعَبْدِ اللَّهِ تَقُولُ بِهِ فَأَوْمَأَ بِرَأْسِهِ

حدثنا عثمان بن عمر حدثنا كهمس عن سيار رجل من فزارة عن أبيه عن بهيسة عن أبيها عن النبي صلى الله عليه وسلم أنه أتى النبي صلى الله عليه وسلم فاستأذنه فدخل بينه وبين قميصه وقد قال عثمان فالتزمه فقال ما الشيء الذي لا يحل منعه فقال الملح والماء قال ما الشيء الذي لا يحل منعه قال إن تفعل الخير خير لك قال ما الشيء الذي لا يحل منعه قال إن تفعل الخير خير لك وانتهى إلى الملح والماء قيل لعبد الله تقول به فأومأ برأسه

 হাদিসের মানঃ হাসান (Hasan)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৫২

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৭১. নাবী (ﷺ) খায়বারে যেভাবে (জমি ভাগে) চাষাবাদ করিয়ে নিয়েছিলেন

২৬৫২. আব্দুল্লাহ ইবনু উমার রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি বলেনঃ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম খায়বারের (বাসীদের) গাছের ফল অথবা ক্ষেতের ফসলের অর্ধেক ভাগে (চাষাবাদের) কাজ করিয়ে নেন।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: বুখারী, আল হারছু ওয়াল মাযারা’আহ ২৩২৮, ২৩২৯, ২৩৩১; মুসলিম, মাসাকাহ ১৫৫১; আহমাদ ২/১৭; আবূ দাউদ, বুয়ূ ৩৪০৮; তিরমিযী, আহকাম ১৩৮৩; ইবনু আবী শাইবা, ৬/৩৪৩-৩৪৪ নং ১২৯০, ১৪/২৮৬ নং ১৮৩৬২; ইবনু আব্দুল বারর, আত তামহীদ ৬/৪৭৩।

باب إِنَّ النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَامَلَ خَيْبَرَ

حَدَّثَنَا مُسَدَّدٌ حَدَّثَنَا يَحْيَى عَنْ عُبَيْدِ اللَّهِ حَدَّثَنِي نَافِعٌ عَنْ عَبْدِ اللَّهِ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَامَلَ خَيْبَرَ بِشَطْرِ مَا يَخْرُجُ مِنْهَا مِنْ ثَمَرَةٍ أَوْ زَرْعٍ

حدثنا مسدد حدثنا يحيى عن عبيد الله حدثني نافع عن عبد الله أن رسول الله صلى الله عليه وسلم عامل خيبر بشطر ما يخرج منها من ثمرة أو زرع

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবদুল্লাহ ইবন উমর (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৫৩

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৭২. মুখাবারাহ (এক প্রকার ভাগে চাষ বা বর্গাচাষ) সম্পর্কে

২৬৫৩. জাবির রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদেরকে বর্গা চাষ হতে নিষেধ করার পূর্বে আমরা দুই কিংবা তিন বছরের জন্য এক-তৃতীয়াংশ, এক-চতুর্থাংশ ফসলের ও (এমনকি) খড়ের শর্তে বর্গা চাষ করতাম। তখন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদেরকে বললেন, “যে ব্যক্তির নিকট জমি রয়েছে, সে যেন নিজে চাষ করে অথবা নিজে চাষ করতে অপছন্দ করলে তা যেন তার ভাইকে দিয়ে দেয়। যদি সে তা তার ভাইকে দিয়ে দিতে অপছন্দ করে, তবে সে যেন তার জমি ফেলে রাখে।”[1]

মুখাবারাহ: ইমাম নাবাবী রাহিমাহুল্লাহ বলেন: ‘বর্গা চাষ বা ভাগে চাষ ও ‘মুখাবারাহ কাছাকাছি দু’টি চাষাবাদ পদ্ধতি; তা হলো: জমিতে উৎপাদিত ফসলের এক তৃতীয়াংশ, এক চতুর্থাংশ কিংবা অন্য যেকোন নির্ধারিত অংশ প্রদানের শর্তে (অন্যের দ্বারা) জমি চাষ করিয়ে নেওয়া। তবে বর্গাচাষে বীজ থাকে জমির মালিকের আর মাখাবারাহ’ পদ্ধতিতে বীজ থাকে বর্গাচাষীর।… (মুহাক্কিক্বের টীকা-অনুবাদক)

 

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ। হাদীসটি বুখারী ও মুসলিম কর্তৃক সম্মিলিত ভাবে বর্ণিত।

 

তাখরীজ: বুখারী, মাযারাআ’হ ২৩৪০; মুসলিম, বুয়ূ ১৫৩৬।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ১৮৪৪, ১৯৯৬, ২০৩৫ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫৯৯৫ এবং মুসনাদুল হুমাইদী ১৩১৮, ১৩১৯ তে।

باب فِي النَّهْيِ عَنْ الْمُخَابَرَةِ

أَخْبَرَنَا أَبُو الْحَسَنِ عَنْ زَكَرِيَّا بْنِ إِسْحَقَ حَدَّثَنَا أَبُو الزُّبَيْرِ أَنَّهُ سَمِعَ جَابِرًا يَقُولُ كُنَّا نُخَابِرُ قَبْلَ أَنْ يَنْهَانَا رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَنْ الْخِبْرِ بَسَنَتَيْنِ أَوْ ثَلَاثٍ عَلَى الثُّلُثِ وَالشَّطْرِ وَشَيْءٍ مِنْ تِبْنٍ فَقَالَ لَنَا رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مَنْ كَانَتْ لَهُ أَرْضٌ فَلْيَحْرُثْهَا فَإِنْ كَرِهَ أَنْ يَحْرُثَهَا فَلْيَمْنَحْهَا أَخَاهُ فَإِنْ كَرِهَ أَنْ يَمْنَحَهَا أَخَاهُ فَلْيَدَعْهَا

أخبرنا أبو الحسن عن زكريا بن إسحق حدثنا أبو الزبير أنه سمع جابرا يقول كنا نخابر قبل أن ينهانا رسول الله صلى الله عليه وسلم عن الخبر بسنتين أو ثلاث على الثلث والشطر وشيء من تبن فقال لنا رسول الله صلى الله عليه وسلم من كانت له أرض فليحرثها فإن كره أن يحرثها فليمنحها أخاه فإن كره أن يمنحها أخاه فليدعها

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ জাবির ইবনু আবদুল্লাহ আনসারী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৫৪

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৭৩. এক তৃতীয়াংশ ও এক চতুর্থাংশ ফসলের ভাগে বর্গাচাষ

২৬৫৪. আবদুল্লাহ ইবনু সায়িব রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি আবদুল্লাহ ইবনু মা’কিল রাদ্বিয়াল্লাহু আনহুকে ’মুযারিয়া’ (ভাগচাষ) সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলাম। তিনি বললেন, আমাকে সাবিত ইবনু দাহহাক আল আনসারী রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু অবহিত করেছেন যে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ’মুযারাআ’ (বর্গা বা ভাগে চাষ) করতে নিষেধ করেছেন।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: ইবনু আবী শাইবা ৬/৩৪৪-৩৪৫ নং ১২৯৩; মুসলিম, বুয়ূ ১৫৪৯; তাহাবী, শারহু মা’আনিল আছার ৪/১০৭; আহমাদ ৪/৩৩; ইবনু হাযম, আল মুহাল্লা ৮/১৮২; বাইহাকী, মুযারা’আহ ৬/১৩৩।

باب فِي النَّهْيِ عَنْ الْمُزَارَعَةِ فِي الثُّلُثِ وَالرُّبْعِ

أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ عُيَيْنَةَ عَنْ عَلِيِّ بْنِ مُسْهِرٍ عَنْ أَبِي إِسْحَقَ الشَّيْبَانِيِّ عَنْ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ السَّائِبِ قَالَ سَأَلْتُ عَبْدَ اللَّهِ بْنَ مَعْقِلٍ عَنْ الْمُزَارَعَةِ فَقَالَ أَخْبَرَنِي ثَابِتُ بْنُ الضَّحَّاكِ الْأَنْصَارِيُّ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ نَهَى عَنْ الْمُزَارَعَةِ قَالَ لِعَبْدِ اللَّهِ تَقُولُ بِهِ قَالَ لَا أَقُولُ بِالْأَوَّلِ

أخبرنا محمد بن عيينة عن علي بن مسهر عن أبي إسحق الشيباني عن عبد الله بن السائب قال سألت عبد الله بن معقل عن المزارعة فقال أخبرني ثابت بن الضحاك الأنصاري أن رسول الله صلى الله عليه وسلم نهى عن المزارعة قال لعبد الله تقول به قال لا أقول بالأول

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৫৫

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৭৪. দু’বছরের জন্য জমি বিক্রয় করার নিষেধাজ্ঞা

২৬৫৫. জাবির রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম পতিত জমি দুই বা তিন বছরের জন্য বিক্রি করতে (ভাড়ায় দিতে) নিষেধ করেছেন।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: আহমাদ ৪/৩৩; মুসলিম, বুয়ূ ১৫৪৯।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ১৮০৬, ১৮৩৪ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৪৯৯২, ৫০০০, ৫১৯২ ও মুসনাদুল হুমাইদী নং ১২৯২ তে।

باب فِي النَّهْيِ عَنْ بَيْعِ الْأَرْضِ سِنِينَ

أَخْبَرَنَا أَبُو نُعَيْمٍ حَدَّثَنَا زُهَيْرٌ عَنْ أَبِي الزُّبَيْرِ عَنْ جَابِرٍ قَالَ نَهَى رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَنْ بَيْعِ الْأَرْضِ الْبَيْضَاءِ سَنَتَيْنِ أَوْ ثَلَاثًا

أخبرنا أبو نعيم حدثنا زهير عن أبي الزبير عن جابر قال نهى رسول الله صلى الله عليه وسلم عن بيع الأرض البيضاء سنتين أو ثلاثا

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ জাবির ইবনু আবদুল্লাহ আনসারী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৫৬

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৭৫. সোনা ও রূপা (টাকা) দ্বারা জমি ইজারা বা ভাড়া দেওয়া অনুমতি প্রসঙ্গে

২৫৫৬. সা’দ ইবনু আবী ওয়াক্কাস রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমরা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর জামানায় নালার নিকটবর্তী কৃষি উপযোগী জমি এবং যেখানে আপনা-আপনি পানি উঠতো, তা বর্গা দিতাম। তখন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদের এরূপ করতে নিষেধ করেন এবং আমাদের এরূপ অনুমতি কিংবা অবকাশ দেন যে, আমরা যেন সোনা বা রূপার বিনিময়ে জমি বর্গা দেই।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ যয়ীফ।

 

তাখরীজ: আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ৮১১ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫২০১ ও মাওয়ারিদুয যাম’আন নং ১১৩৩ তে।((আহমাদ ১/১৭৮, ১৮২; আবূ দাউদ, বুয়ূ ৩৩৯১; নাসাঈ, মুযারা’আহ ৩৮৯৪; বাইহাকী, কুবরা ৬/১৩৩।–ফাতহুল মান্নান হা/২৭৮২ এর টীকা হতে।–অনুবাদক))

باب فِي الرُّخْصَةِ فِي كِرَاءِ الْأَرْضِ بِالذَّهَبِ وَالْفِضَّةِ

أَخْبَرَنَا إِسْحَقُ بْنُ إِبْرَاهِيمَ حَدَّثَنَا يَزِيدُ بْنُ هَارُونَ أَخْبَرَنَا إِبْرَاهِيمُ بْنُ سَعْدٍ عَنْ مُحَمَّدِ بْنِ عِكْرِمَةَ بْنِ عَبْدِ الرَّحْمَنِ بْنِ الْحَارِثِ بْنِ هِشَامٍ عَنْ مُحَمَّدِ بْنِ عَبْدِ الرَّحْمَنِ بْنِ أَبِي لَبِيبَةَ عَنْ سَعِيدِ بْنِ الْمُسَيَّبِ عَنْ سَعْدِ بْنِ أَبِي وَقَّاصٍ قَالَ كُنَّا نُكْرِي الْأَرْضَ عَلَى عَهْدِ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ بِمَا عَلَى السَّوَاقِي مِنْ الزَّرْعِ وَبِمَا سَعِدَ مِنْ الْمَاءِ مِنْهَا فَنَهَانَا رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَنْ ذَلِكَ وَأَذِنَ لَنَا أَوْ قَالَ رَخَّصَ لَنَا فِي أَنْ نُكْرِيَهَا بِالذَّهَبِ وَالْوَرِقِ

أخبرنا إسحق بن إبراهيم حدثنا يزيد بن هارون أخبرنا إبراهيم بن سعد عن محمد بن عكرمة بن عبد الرحمن بن الحارث بن هشام عن محمد بن عبد الرحمن بن أبي لبيبة عن سعيد بن المسيب عن سعد بن أبي وقاص قال كنا نكري الأرض على عهد رسول الله صلى الله عليه وسلم بما على السواقي من الزرع وبما سعد من الماء منها فنهانا رسول الله صلى الله عليه وسلم عن ذلك وأذن لنا أو قال رخص لنا في أن نكريها بالذهب والورق

 হাদিসের মানঃ যঈফ (Dai’f)  বর্ণনাকারীঃ সা’দ বিন আবূ ওয়াক্কাস (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৫৭

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৭৬. অনুমানে (ক্রয়-বিক্রয়) সম্পর্কে

২৬৫৭. আব্দুর রহমান ইবন মাসউদ ইবন নিয়ার (রহঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, সাহল ইবন আবু হাসমা রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু একবার আমাদের বৈঠকে আসেন এবং হাদীছ বর্ণনা করলেন যে, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলতেনঃ তোমরা (যাকাত আদায়কারী) যদি ফসলাদির অনুমান কর তবে সে হারে (যাকাত) গ্রহণ করবে এবং (যাকাত পরিমাণ থেকেও) এক তৃতীয়াংশ পরিমাণ (যাকাত দাতার জন্য) ছেড়ে দিবে। যদি এক তৃতীয়াংশ না ছাড় তবে এক চতুর্থাংশ ছেড়ে দিবে।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ জাইয়্যেদ বা উত্তম।

 

তাখরীজ: আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৩২৮০ ও মাওয়ারিদুয যাম’আন নং ৭৯৮ তে।((আহমাদ ৩/৪৪৮, ৪/২-৩,৩;; আবূ দাউদ, যাকাত ১৬০৫; তিরমিযী, যাকাত ৬৪৩; নাসাঈ, যাকাত ২৪৯১; বাইহাকী, কুবরা ৪/১২৩; ইবনু খুযাইমা, আস সহীহ ২৩১৯, ২৩২০; হাকিম ১/৪০২।–ফাতহুল মান্নান হা/২৭৮৩ এর টীকা হতে।–অনুবাদক))

باب فِي الْخَرْصِ

حَدَّثَنَا هَاشِمُ بْنُ الْقَاسِمِ حَدَّثَنَا شُعْبَةُ عَنْ خُبَيْبِ بْنِ عَبْدِ الرَّحْمَنِ عَنْ عَبْدِ الرَّحْمَنِ بْنِ مَسْعُودِ بْنِ نِيَارٍ الْأَنْصَارِيِّ قَالَ جَاءَ سَهْلُ بْنُ أَبِي حَثْمَةَ إِلَى مَجْلِسِنَا فَحَدَّثَ أَنَّ النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ إِذَا خَرَصْتُمْ فَخُذُوا وَدَعُوا دَعُوا الثُّلُثَ فَإِنْ لَمْ تَدَعُوا الثُّلُثَ فَدَعُوا الرُّبُعَ

حدثنا هاشم بن القاسم حدثنا شعبة عن خبيب بن عبد الرحمن عن عبد الرحمن بن مسعود بن نيار الأنصاري قال جاء سهل بن أبي حثمة إلى مجلسنا فحدث أن النبي صلى الله عليه وسلم قال إذا خرصتم فخذوا ودعوا دعوا الثلث فإن لم تدعوا الثلث فدعوا الربع

 হাদিসের মানঃ হাসান (Hasan)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৫৮

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৭৭. দাসীর উপার্জন নিষিদ্ধ

২৬৫৮. আবূ হুরাইরাহ্ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দাসীদের (অবৈধ) উপার্জন নিষিদ্ধ করেছেন।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: বুখারী, ইজারাহ ২২৮৩;

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫১৫৮, ৫১৫৯ তে। ((আবূ দাউদ, বুয়ূ ৩৪২৫; আহমাদ ২/২৮৭, ৩৮২, ৪৩৭-৪৩৮, ৪৫৪- ফাতহুল মান্নান হা/২৭৮৪ এর টীকা হতে। -অনুবাদক))

 

সংযোজনী: এছাড়াও, আবূ নুয়াইম, হিলইয়া ৭/১৬৩; খতীব, তারীখ বাগদাদ ১০/৪৩৩।

باب فِي النَّهْيِ عَنْ كَسْبِ الْأَمَةِ

حَدَّثَنَا سَهْلُ بْنُ حَمَّادٍ حَدَّثَنَا شُعْبَةُ حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ جُحَادَةَ عَنْ أَبِي حَازِمٍ عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ قَالَ نَهَى رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَنْ كَسْبِ الْإِمَاءِ

حدثنا سهل بن حماد حدثنا شعبة حدثنا محمد بن جحادة عن أبي حازم عن أبي هريرة قال نهى رسول الله صلى الله عليه وسلم عن كسب الإماء

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ হুরায়রা (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৫৯

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৭৮. হজ্জাম বা শিঙ্গা লাগানোর মাধ্যমে কোনো ব্যক্তির উপার্জন করার নিষেধাজ্ঞা

২৬৫৯. রাফি ইবনু খাদীজ রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত যে, রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন: “শিঙ্গা লাগানোর পারিশ্রমিক ঘৃণ্য, পতিতার উপার্জন ঘৃণ্য, কুকুরের বিক্রি-মূল্য ঘৃণ্য।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: মুসলিম, মাসাকাহ ১৫৬৮।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫১৫২, ৫১৫৩ তে। ((আহমাদ ৩/৪৬৪, ৪৬৫, ৪/১৪০, ১৪১; আবু দাউদ, বুয়ূ ৩৪২১; তিরমিযী, বুয়ূ ১২৭৫; নাসাঈ, সাইদ ওয়াল যাবাইহ নং ৪২৯৪…।-ফাতহুল মান্নান, হা/২৭৮৫ এর টীকা হতে।– অনুবাদক))

 

সংযোজনী: এছাড়াও, ইবনু আবী শাইবা ৪/৪২; হাকিম ২/৪২; ইবনু আব্দুল বারর, তামহীদ ২/২২৬; তাহাবী, শারহু মা’আনিল আছার ৪/৫২।

باب فِي النَّهْيِ عَنْ كَسْبِ الْحَجَّامِ

أَخْبَرَنَا وَهْبُ بْنُ جَرِيرٍ حَدَّثَنَا هِشَامٌ عَنْ يَحْيَى عَنْ إِبْرَاهِيمَ بْنِ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ قَارِظٍ أَنَّ السَّائِبَ بْنَ يَزِيدَ حَدَّثَهُ أَنَّ رَافِعَ بْنَ خَدِيجٍ حَدَّثَهُ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ كَسْبُ الْحَجَّامِ خَبِيثٌ وَمَهْرُ الْبَغِيِّ خَبِيثٌ وَثَمَنُ الْكَلْبِ خَبِيثٌ

أخبرنا وهب بن جرير حدثنا هشام عن يحيى عن إبراهيم بن عبد الله بن قارظ أن السائب بن يزيد حدثه أن رافع بن خديج حدثه أن رسول الله صلى الله عليه وسلم قال كسب الحجام خبيث ومهر البغي خبيث وثمن الكلب خبيث

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ রাফি‘ ইবনু খাদীজ (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৬০

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৭৯. শিঙ্গা লাগিয়ে উপার্জন করার অনুমতি দান সম্পর্কে

২৬৬০. আনাস ইবনু মালিক রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আবূ তায়বা আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে শিঙ্গা লাগালেন তখন তিনি তাকে দু’ সা’আ পরিমাণ খাদ্য দিতে আদেশ করলেন।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ। হাদীসটি বুখারী ও মুসলিম কর্তৃক সম্মিলিত ভাবে বর্ণিত।

 

তাখরীজ: বুখারী, বুয়ূ ২১০২; মুসলিম, মাসাকাহ ১৫৭৭।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ২৮৩৫, ৩০৪১, ৩০৪৮, ৩৭০৯, ৩৭১০, ৩৭৫৮, ৩৮৫০, ৪২২৫ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫১৫১ ও মুসনাদুল হুমাইদী নং ১২৫১ তে।

باب فِي الرُّخْصَةِ فِي كَسْبِ الْحَجَّامِ

أَخْبَرَنَا يَزِيدُ بْنُ هَارُونَ أَخْبَرَنَا حُمَيْدٌ الطَّوِيلُ عَنْ أَنَسِ بْنِ مَالِكٍ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ حَجَمَهُ أَبُو طَيْبَةَ وَأَمَرَ لَهُ بِصَاعَيْنِ مِنْ طَعَامٍ

أخبرنا يزيد بن هارون أخبرنا حميد الطويل عن أنس بن مالك أن رسول الله صلى الله عليه وسلم حجمه أبو طيبة وأمر له بصاعين من طعام

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আনাস ইবনু মালিক (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৬১

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৮০. ষাঁড় বা পাঠা কর্তৃক পশুকে পাল দিয়ে এর মুল্য গ্রহণ করা নিষেধ

২৬৬১. আবূ হুরায়রা রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ষাঁড় বা পাঁঠা (কর্তৃক পশুকে) পাল দিয়ে এর মুল্য গ্রহণ করতে নিষেধ করেছেন।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ৬৩৭১ ও আবী ইয়া’লার মু’জামুশ শুয়ূখ নং ১৯৭ তে।

 

((নাসাঈ, আল কুবরা, বুয়ূ নং ৪৬৯৮, ৪৬৯৯; ইবনু মাজাহ, তিজারাত নং ২১৬০; তাহাবী, শারহু মা’আনিল আছার ৪/৫৩।-ফাতহুল মান্নান, হা/২৭৮৭ এর টীকা হতে।– অনুবাদক))

 

সংযোজনী: এছাড়াও, ইবনু আবী শাইবা, ৭/১৪৫, ১৪৬।

باب فِي النَّهْيِ عَنْ عَسْبِ الْفَحْلِ

أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ عِيسَى حَدَّثَنَا ابْنُ فُضَيْلٍ عَنْ الْأَعْمَشِ عَنْ أَبِي حَازِمٍ عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ قَالَ نَهَى رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَنْ ثَمَنِ عَسْبِ الْفَحْلِ

أخبرنا محمد بن عيسى حدثنا ابن فضيل عن الأعمش عن أبي حازم عن أبي هريرة قال نهى رسول الله صلى الله عليه وسلم عن ثمن عسب الفحل

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ আবূ হুরায়রা (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৬২

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৮০. ষাঁড় বা পাঠা কর্তৃক পশুকে পাল দিয়ে এর মুল্য গ্রহণ করা নিষেধ

২৬৬২. আবূ হুরায়রা রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ষাঁড় বা পাঠা (কর্তৃক পশুকে) পাল দিয়ে এর মুল্য এবং পতিতার মজুরী গ্রহণ নিষিদ্ধ করেছেন।[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ জাইয়্যেদ বা উত্তম।

 

তাখরীজ: আহমাদ ২/৩৩২, ৪১৫; বুখারী, কাবীর তা’লিক হিসেবে ৭/১১৫।

باب فِي النَّهْيِ عَنْ عَسْبِ الْفَحْلِ

أَخْبَرَنَا مُسْلِمُ بْنُ إِبْرَاهِيمَ حَدَّثَنَا الْقَاسِمُ بْنُ الْفَضْلِ حَدَّثَنَا أَبِي عَنْ الْمَهْرِيِّ قَالَ قَالَ أَبُو هُرَيْرَةَ نَهَى رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَنْ عَسْبِ الْفَحْلِ وَأَجْرِ الْمُومِسَةِ

أخبرنا مسلم بن إبراهيم حدثنا القاسم بن الفضل حدثنا أبي عن المهري قال قال أبو هريرة نهى رسول الله صلى الله عليه وسلم عن عسب الفحل وأجر المومسة

 হাদিসের মানঃ হাসান (Hasan)  বর্ণনাকারীঃ আবূ হুরায়রা (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৬৩

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৮১. যে ব্যক্তি কোনো ঘরবাড়ি বা ভূসম্পত্তি বিক্রয় করে, কিন্তু তার মুল্য যদি অনুরূপ (বাড়ি বা সম্পত্তি ক্রয় করার)-এর ব্যাপারে ব্যয় না করে

২৬৬৩. সাঈদ ইবনু হুরাইস-যিনি সাহাবা হওয়ার মর্যাদা লাভ করেছেন- তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বলতে শুনেছি: “যে ব্যক্তি কোনো ঘরবাড়ি বা ভূসম্পত্তি বিক্রয় করে, তবে তা (মুল্য) যদি অনুরূপ (বাড়ি বা সম্পত্তি ক্রয় করার)-এর ব্যাপারে ব্যয় না করে, তবে তা (তার বাড়ি বিক্রয়) বরকত লাভের যোগ্য হবে না।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ যয়ীফ ইসমাঈল ইবনু ইবরাহীম বিন মুহাজির এর দুর্বলতার কারণে।

 

তাখরীজ: আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ১৪৫৮ তে।

 

সংযোজনী: এছাড়াও, ফাসাওয়ী, আল মা’রিফাতুত তারীখ ১/২৯৪; তাবারাণী, কাবীর ৬/৬৫ নং ৫৫২৬; ইবনু আবী আসিম, আহাদ ওয়াল মাছানী নং ৭০৯, ৭১০; ইবনুল কানি, মু’জামুস সাহাবাহ তারজমাহ নং ৩০৮।

 

তবে এর শাহিদ হাদীস রয়েছে কয়েকটি যা এটিকে শক্তিশালী করে। আমরা এগুলি তাখরীজ দিয়েছি মাজমাউয যাওয়াইদ নং ৬৬২৭-৬৬৩২।

باب فِيمَنْ بَاعَ دَارًا فَلَمْ يَجْعَلْ ثَمَنَهَا فِي مِثْلِهَا

أَخْبَرَنَا أَبُو نُعَيْمٍ حَدَّثَنَا إِسْمَعِيلُ هُوَ ابْنُ إِبْرَاهِيمَ بْنِ مُهَاجِرٍ قَالَ سَمِعْتُ عَبْدَ الْمَلِكِ بْنَ عُمَيْرٍ يُحَدِّثُ قَالَ سَمِعْتُ عَمْرَو بْنَ حُرَيْثٍ عَنْ أَخِيهِ سَعِيدِ بْنِ حُرَيْثٍ وَكَانَتْ لَهُ صُحْبَةٌ قَالَ سَمِعْتُ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَقُولُ مَنْ بَاعَ مِنْكُمْ دَارًا أَوْ عَقَارًا قَمِنٌ أَنْ لَا يُبَارَكَ لَهُ إِلَّا أَنْ يَجْعَلَهُ فِي مِثْلِهِ

أخبرنا أبو نعيم حدثنا إسمعيل هو ابن إبراهيم بن مهاجر قال سمعت عبد الملك بن عمير يحدث قال سمعت عمرو بن حريث عن أخيه سعيد بن حريث وكانت له صحبة قال سمعت رسول الله صلى الله عليه وسلم يقول من باع منكم دارا أو عقارا قمن أن لا يبارك له إلا أن يجعله في مثله

 হাদিসের মানঃ যঈফ (Dai’f)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৬৪

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৮২. কূপের নির্ধারিত স্থানের সীমা সম্পর্কে

২৬৬৪. আবদুল্লাহ ইবনে মুগাফফাল রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ “কোনো ব্যক্তি যখন কোনো কূপ খনন করে, তখন তার গবাদিপশুকে পানি পান করানোর পর বিশ্রাম গ্রহণের জন্য কূপের চারপাশে চল্লিশ হাত জায়গার মধ্যে অন্য কারো জন্য অপর কোনো কুপ খনন করা উচিত নয়।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদে দু’টি ত্রুটি বিদ্যমান: ১. ইসমাঈল ইবনু মুসলিমের দুর্বল হওয়া; ২. হাসান কর্তৃক এটি ‘আন আন’ শব্দে বর্ণনা করা।

 

তাখরীজ: ইবনু মাজাহ, রুহূন ২৪৮৬।

 

তবে এর শাহিদ হাদীস রয়েছে আবী হুরাইরা রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু হতে, আমরা যার তাখরীজ দিয়েছি মাজমাউয যাওয়াইদ নং ৬৭০৫ তে।

 

আরও দেখুন, নাসবুর রায়াহ ৪/২৯১-২৯৩; তালখীসুল হাবীর ৩/৬৩; আবী উবাইদ, আল আমওয়াল নং ৭১৮; দারুকুতনী, আল ইলাল ১০/৪৬ নং ১৮৪৮; বাইহাকী ৬/১৫৫; আল মা’রিফাহ ৯/৩১-৩২; হাকিম ৪/৯৭; দারুকুতনী, ৪/২২০।

باب فِي حَرِيمِ الْبِئْرِ

أَخْبَرَنَا إِسْحَقُ بْنُ إِبْرَاهِيمَ أَخْبَرَنَا عَرْعَرَةُ بْنُ الْبِرِنْدِ السَّامِيُّ حَدَّثَنَا إِسْمَعِيلُ بْنُ مُسْلِمٍ عَنْ الْحَسَنِ عَنْ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ مُغَفَّلٍ عَنْ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ مَنْ احْتَفَرَ بِئْرًا فَلَيْسَ لِأَحَدٍ أَنْ يَحْفِرَ حَوْلَهُ أَرْبَعِينَ ذِرَاعًا عَطَنًا لِمَاشِيَتِهِ

أخبرنا إسحق بن إبراهيم أخبرنا عرعرة بن البرند السامي حدثنا إسمعيل بن مسلم عن الحسن عن عبد الله بن مغفل عن رسول الله صلى الله عليه وسلم قال من احتفر بئرا فليس لأحد أن يحفر حوله أربعين ذراعا عطنا لماشيته

 হাদিসের মানঃ যঈফ (Dai’f)  বর্ণনাকারীঃ আবদুল্লাহ ইবনু মুগাফফাল (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৬৫

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৮৩. শুফ’আ বা অগ্রে ক্রয়াধিকার সম্পর্কে

২৬৬৫. জাবির ইবনু আবদুল্লাহ রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, তাদের (ক্রেতা-বিক্রেতার) উভয়ের (বাড়ীতে) যাতায়াতের রাস্তা এক হয়, তাদের মধ্যে শুফ’আ (ক্রয়ে অগ্রাধিকার)-’র ব্যাপারে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ “যদি তার সাথী (প্রতিবেশী) উপস্থিত না থাকে, তবে তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে।”[1]

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ সহীহ।

 

তাখরীজ: আব্দুর রাযযাক নং ১৪৩৯৬; তায়ালিসী ২/২৭৮ নং ১৪০৪; আহমাদ ৩/৩০৩; আবু দাউদ, বুয়ূ ৩৫১৮; ইবনু হাযম, আল ‍মুহাল্লা ৯/১০১; তিরমিযী, আহকাম ১৩৬৯; ইবনু মাজাহ, শুফ’আহ ২৪৯৪;তাহাবী, শারহু মা’আনিল আছার ৪/১২০, ১২১; বাইহাকী, শুফ’আহ ৬/১০৬। দেখুন, মা’রিফাতুস সুনান ওয়াল আসার ৮/৩১৫; ইবনু আব্দুল বারর, তামহীদ ৭/৪৭; বাগাবী, শারহুস সুন্নাহ, ৮/২৪২; ফাতহুল বারী ৪/৪৩৮; বাইহাকী, সুনান ৬/১০৬-১০৮।

باب فِي الشُّفْعَةِ

أَخْبَرَنَا يَعْلَى حَدَّثَنَا عَبْدُ الْمَلِكِ عَنْ عَطَاءٍ عَنْ جَابِرٍ عَنْ النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فِي الشُّفْعَةِ إِذَا كَانَ طَرِيقُهُمَا وَاحِدًا قَالَ يُنْظَرُ بِهَا وَإِنْ كَانَ صَاحِبُهَا غَائِبًا

أخبرنا يعلى حدثنا عبد الملك عن عطاء عن جابر عن النبي صلى الله عليه وسلم في الشفعة إذا كان طريقهما واحدا قال ينظر بها وإن كان صاحبها غائبا

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ জাবির ইবনু আবদুল্লাহ আনসারী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 ২৬৬৬

 শেয়ার ও অন্যান্য 

  • বাংলা/ العربية

পরিচ্ছেদঃ ৮৩. শুফ’আ বা অগ্রে ক্রয়াধিকার সম্পর্কে

২৬৬৬. জাবির রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম প্রত্যেক শরীকী মালে ’শুফআ’-এর আদেশ করেছেন যা এখনও বণ্টন করা হয়নি: ঘর-বাড়ি অথবা বাগানের এক অংশীদারের নিজের অংশ অন্য অংশীদারের অনুমতি না নেওয়া পর্যন্ত বিক্রি করা বৈধ নয়। সেই অংশীদারের ইচ্ছা সে নিতেও পারে, নাও নিতে পারে। আর যদি কোন অংশীদার অন্য অংশীদারের অনুমতি না নিয়ে বিক্রি করে দেয়- তবে এক্ষেত্রে সে-ই তার অধিক হকদার।[1] আবূ মুহাম্মদ কে বলা হলো: আপনি কি এমত পোষণ করেন? তিনি বলেন, হাঁ।

[1] তাহক্বীক্ব: এর সনদ যয়ীফ। হাদীসটি বুখারী ও মুসলিম কর্তৃক সম্মিলিত ভাবে বর্ণিত।

 

তাখরীজ: বুখারী, বুয়ূ ২২১৩; মুসলিম, মাসাকাহ ১৬০৮।

 

আমরা এর পূর্ণ তাখরীজ দিয়েছি মুসনাদুল মাউসিলী নং ১৮৩৫, ১৮৫১, ২১৭১ ও সহীহ ইবনু হিব্বান নং ৫১৭৯, ৫১৮৪, ৫১৮৬, ৫১৮৭ তে।

باب فِي الشُّفْعَةِ

أَخْبَرَنَا مُحَمَّدُ بْنُ الْعَلَاءِ حَدَّثَنَا عَبْدُ اللَّهِ بْنُ إِدْرِيسَ عَنْ ابْنِ جُرَيْجٍ عَنْ أَبِي الزُّبَيْرِ عَنْ جَابِرٍ قَالَ قَضَى رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ بِالشُّفْعَةِ فِي كُلِّ شِرْكٍ لَمْ يُقْسَمْ رَبْعَةٍ أَوْ حَائِطٍ لَا يَحِلُّ لَهُ أَنْ يَبِيعَ حَتَّى يُؤْذِنَ شَرِيكَهُ فَإِنْ شَاءَ أَخَذَ وَإِنْ شَاءَ تَرَكَ فَإِنْ بَاعَ وَلَمْ يُؤْذِنْهُ فَهُوَ أَحَقُّ بِهِ قِيلَ لِأَبِي مُحَمَّدٍ تَقُولُ بِهَذَا قَالَ نَعَمْ

أخبرنا محمد بن العلاء حدثنا عبد الله بن إدريس عن ابن جريج عن أبي الزبير عن جابر قال قضى رسول الله صلى الله عليه وسلم بالشفعة في كل شرك لم يقسم ربعة أو حائط لا يحل له أن يبيع حتى يؤذن شريكه فإن شاء أخذ وإن شاء ترك فإن باع ولم يؤذنه فهو أحق به قيل لأبي محمد تقول بهذا قال نعم

 হাদিসের মানঃ সহিহ (Sahih)  বর্ণনাকারীঃ জাবির ইবনু আবদুল্লাহ আনসারী (রাঃ)  পুনঃনিরীক্ষণঃ   সুনান আদ-দারেমী (হাদিসবিডি)  ১৮. ব্যবসা-বাণিজ্য অধ্যায় (كتاب البيوع)

 

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।